kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

প্রশ্ন-উত্তর

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিয়ে না করে সংসার করা যাবে কি

প্রশ্ন : আমাদের এলাকায় দুজন লোক আছেন, যাঁরা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে থাকেন (লিভ টুগেদার করেন)। তবে তাঁরা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হননি। তাঁদের বাচ্চাও হয়েছে। এভাবেই তাঁরা ২০ বছর যাবৎ সংসার করছে। শরিয়তের দৃষ্টিতে এভাবে সংসার করা জায়েজ হবে কি না?

—মো. জাকির হোসেন, কুমিল্লা।

 

উত্তর : যদি সত্যিই তাঁরা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ না হয়ে থাকেন, তাহলে অত্যন্ত জঘন্য কাজ করছেন। এটি স্পষ্ট জিনা (ব্যভিচার), যা পরিহার করা জরুরি। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, তোমরা ব্যভিচারের কাছেও যেয়ো না। নিশ্চয় তা অশ্লীল কাজ ও মন্দ পথ। (সুরা : ইসরা, আয়াত : ৩২) তাঁদের উচিত, বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়ে হালাল পন্থায় সংসার করা। কারণ লিভ টুগেদার প্রতিটি মুহূর্তেই মানুষকে কবিরা গুনাহে লিপ্ত রাখে। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত—তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, চোখের ব্যভিচার হলো (বেগানা নারীকে) দেখা, জিহ্বার ব্যভিচার হলো (তার সঙ্গে) কথা বলা (যৌন উদ্দীপ্ত কথা বলা)। (বুখারি, হাদিস : ৬২৪৩) অন্য হাদিসে ইরশাদ হয়েছে, দুই চোখের জিনা (বেগানা নারীর দিকে) তাকানো, কানের জিনা যৌন উদ্দীপ্ত কথা শোনা, মুখের জিনা আবেগ উদ্দীপ্ত কথা বলা, হাতের জিনা (বেগানা নারীকে খারাপ উদ্দেশ্যে) স্পর্শ করা আর পায়ের জিনা ব্যভিচারের উদ্দেশ্যে অগ্রসর হওয়া এবং মনের জিনা হলো চাওয়া ও প্রত্যাশা করা। (মেশকাত, হাদিস : ৮৬)

 

শিশুদের নতুন দাঁত উঠলে পিঠা খাওয়াতে হয়?

প্রশ্ন : আমাদের এলাকায় শিশুদের নতুন দাঁত উঠলে বিভিন্ন রকম পিঠা খাওয়াতে হয়। শরিয়তের দৃষ্টিতে আমাদের জন্য এটি বাধ্যমূলক কি না?

—মো. ওমর ফারুক, কিশোরগঞ্জ।

 

উত্তর : এটি সামাজিক রেওয়াজ মাত্র। এর সঙ্গে ইসলামের কোনো সম্পর্ক নেই। শরিয়ত মনে করে এ ধরনের কাজ করা বিদআত হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা