kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

প্রশ্ন-উত্তর

ক্রেতা দোকানে মালামাল ফেলে গেলে কী করব?

৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্রশ্ন : আমার একটি সমিল আছে। আশপাশের বিভিন্ন এলাকার মানুষ আমার কাছে গাছ চিড়তে আসে। সাধারণত মালিক নিজে গাছ নিয়ে আসেন না, কর্মচারী পাঠান। আবার সবাইকে চিনে রাখা সম্ভব হয় না। গত কয়েক মাস থেকে কার যেন দুটি গাছ মিলে পড়ে আছে। এগুলো চিড়া হয়েছে। কিন্তু কেউ এগুলো নিতেও আসছে না, খোঁজও নিচ্ছে না। গাছগুলো দোকানে সংরক্ষণ করতে অসুবিধা হচ্ছে। এখন আমার করণীয় কী?

—শেখ আলামিন, মোরেলগঞ্জ, বাগেরহাট।

 

উত্তর : প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে আপনার কর্তব্য হলো, গাছ দুটির মালিকের যথাসাধ্য খোঁজ লাগানো এবং যাঁরা সাধারণত আপনার মিলে গাছ চিড়তে আসেন তাঁদের জিজ্ঞেস করা। যদি কেউ উপযুক্ত প্রমাণসহ গাছগুলো দাবি করেন, তাহলে তাঁকে সেগুলো দিয়ে দেওয়া। আর যদি যথাযথ খোঁজ করার পরও মালিকের সন্ধান পাওয়া না যায় এবং সামনেও পাওয়ার সম্ভাবনা না থাকে, তাহলে কাঠগুলো বিক্রি করে আপনার গাছ চিড়ার মজুরি রেখে বাকি টাকা মালিকের পক্ষ থেকে কোনো দরিদ্রকে সদকা করে দেবেন। আর ভবিষ্যতে এ সমস্যা থেকে বাঁচার জন্য যাঁরা গাছ রেখে যান তাঁদের নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর লিখে রাখবেন।

সূত্র : আলমাবসুত, সারাখসি : ১১/৩; বাদায়িউস সানায়ে : ৫/২৯৮; আলবাহরুর রায়িক : ৫/১৫২; ফাতাওয়া হিন্দিয়া : ২/২৮৯

 

পারিবারিক প্রতিষ্ঠানে সময় দিয়ে বেতন দাবি করা যাবে?

প্রশ্ন : আমার বাবার টিনের ব্যবসা আছে। অনেক দিন থেকেই তিনি ব্যবসা করেন। ব্যবসার সম্পূর্ণ পুঁজি তাঁর একারই। আমরা দুই ভাই বড় হওয়ার পর তিনি আমাদেরও ব্যবসায় লাগিয়েছেন। এখন আমরা সবাই মিলে ব্যবসা দেখাশোনা করি। আমরা দুজনই বিবাহিত। মা-বাবার সঙ্গে আমাদের সবার যৌথ সংসার। ইদানীং কোনো কারণে বড় ভাইয়ের সঙ্গে আমার মিল হচ্ছে না। তাই চাচ্ছি, পৃথক হয়ে অন্য কোনো ব্যবসা করব। আমি গত সাত বছর দোকানে খেটেছি। এ সময়ে যখন যে প্রয়োজন দেখা দিয়েছে বাবার কাছ থেকে টাকা নিয়ে তা পূরণ করেছি। জানার বিষয় হলো, ওই দীর্ঘ সময়ের খাটুনি বাবদ আমি কি কোনো প্রাপ্য বা ব্যবসার কোনো অংশের মালিকানা দাবি করতে পারব?

—মুহাম্মদ ইউনুস, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ।

 

উত্তর : প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে বাবার ব্যবসায় সম্পৃক্ততার সময় যেহেতু আপনাদের শ্রমের বিনিময়ে মাসিক বা বার্ষিক কোনো বেতন বা ব্যবসায় আপনাদের অংশীদার হওয়ার কোনো চুক্তি হয়নি, তাই আপনি এ ব্যবসা থেকে কোনো পারিশ্রমিক বা অংশ দাবি করতে পারবেন না। ব্যবসাটির সম্পূর্ণ মালিক আপনার বাবা। আপনারা দুই ভাই তাঁর পরিবারভুক্ত ও তাঁর সহযোগী মাত্র।

উল্লেখ্য, সন্তানরা যদিও ব্যবসা থেকে কোনো অংশ বা পারিশ্রমিক দাবি করতে পারবে না, তবু বাবার উচিত তারা যেহেতু দীর্ঘ সময় ব্যবসায় শ্রম দিয়েছে, তাই তাদের একেবারে বঞ্চিত না করা। বরং তাদের এমন কিছু দেওয়া যেন তারা খুশি হয়।

সূত্র : মাজাল্লাতুল আহকামিল আদলিয়্যা, মাদ্দা ১৩৯৮; রদ্দুল মুহতার : ৪/৩২৫; তানকিহুল ফাতাওয়াল হামিদিয়্যা : ২/১৭; ফাতাওয়া হিন্দিয়া : ২/৩২৯

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা