kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

যুক্তরাজ্যে বন্যার্তদের সেবায় মুসলিমদের অনন্য নজির

শেখ আহমদ বিন মাসউদ   

২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যুক্তরাজ্যে বন্যার্তদের সেবায় মুসলিমদের অনন্য নজির

যুক্তরাজ্যের বন্যা-আক্রান্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে সে দেশের মুসলিম কমিউনিটিগুলো। মুসলিম দাতব্য প্রতিষ্ঠান আল খায়ের ফাউন্ডেশনের নেতৃত্বে এই সহযোগিতা কার্যক্রম চলছে। তারা বন্যাকবলিত অঞ্চলে প্যাকেটজাত খাবার, পানীয় ও ওষুধ বিতরণ করছে। গত সপ্তাহে ‘আল খায়ের’ ২০০ আক্রান্ত মানুষের ভেতর নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বিতরণ করেন।

মুসলিম কমিউনিটিগুলো যুক্তরাজ্যের সাউফ ইয়র্কশায়ারসহ বিভিন্ন আক্রান্ত এলাকায় কাজ করছে। দ্য স্টারসহ যুক্তরাজ্যের মূল্যধারার গণমাধ্যমে তাদের সেবামূলক কার্যক্রমের ওপর সপ্রশংস প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

আল খায়ের ফাউন্ডেশনের মুখপাত্র ইমরান মুসা বলেন, ‘পরিস্থিতি অত্যন্ত উদ্বেগজনক। আক্রান্ত অঞ্চলে সেনাবাহিনী কাজ করছে। মানুষের নানামুখী প্রয়োজন রয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি তা পূরণ করার। আমি আক্রান্ত অঞ্চলে গরম খাবার, পানীয়, লেপ, বালিশ, প্যাকেটজাত খাবার ও পরিচ্ছন্নতার সরঞ্জামাদি বিতরণ করছি।’ তিনি আরো বলেন, ‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও নিয়ন্ত্রণে আসার আগ পর্যন্ত এই সেবামূলক কার্যক্রম চলবে। আমরা সারা দেশ থেকে স্বেচ্ছাসেবী একত্র করছি। বিশুদ্ধ খাবার পানীয় সরবরাহ করাকেই আমরা প্রাধান্য দিচ্ছি।’

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ল্যান্ড লর্ড স্কট গডফ্রে বলেন, ‘আমরা এখন উঁচু স্থানে নির্মিত আশ্রয়কেন্দ্রে আছি। সুতরাং আমরা আক্রান্ত মানুষের জন্য কিছু করার কথা চিন্তা করতে পারছি। আল খায়েরের সহযোগিতা অভূতপূর্ব। তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করতে পারব না। তারা মানুষের ভেতর আশা জাগিয়ে তুলেছে।’

মানুষের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে বলেন, ‘আমরা যখন সেখানে পৌঁছাই সবাই আমাদের দেখে আনন্দিত হয় এবং তাদের চোখে ছিল আনন্দাশ্রু। আমরা অন্যান্য মুসলিম দাতব্য প্রতিষ্ঠানকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানাব। একসঙ্গে কাজ করলে আমরা একটি পরিবর্তন আনতে পারি।’

উল্লেখ্য, বর্তমানে বন্যার কারণে যুক্তরাজ্যের ৫৮টি অঞ্চলকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে।

     দ্য স্টার অবলম্বনে

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা