kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

দুবাইয়ে নারীদের আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা

শেখ আবদুল্লাহ বিন মাসউদ   

৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুবাইয়ে নারীদের আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে চলছে নারীদের আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা ‘দ্য শায়খা ফাতিমা বিনত মোবারক ইন্টারন্যাশনাল হলি কোরআন কম্পিটিশন’। গত ৪ নভেম্বর (২০১৯) প্রতিযোগিতাটি দুবাই কালচারাল অ্যান্ড সায়েন্টিফিক অ্যাসোসিয়েশন হলে শুরু হয় এবং ১৬ নভেম্বর তা শেষ হবে।

অনুষ্ঠানে প্যানেল বিচারক হিসেবে ফিলিস্তিন, দ্য কমোরস আইসল্যান্ড, বাংলাদেশ, রিপাবলিক অব ঘানা, তিউনিশিয়া ও মালদ্বীপের প্রতিনিধিরা দায়িত্ব পালন করছেন। আর কোরআন বিশেষজ্ঞ হিসেবে উপস্থিত আছেন দুবাই, সৌদি আরব, মিসর, ইরাক, সেনেগাল ও বাহরাইনের ছয়জন আলেম।

নারীদের জন্য আয়োজিত ব্যতিক্রমধর্মী এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন ৬৮টি দেশের প্রতিযোগীরা। প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন নুসাইবা সুলতানা ইলমা।

দুবাইয়ের ইসলাম ও ওয়াক্ফ বিভাগের পরিচালক ড. হামাদ বিন শায়খ আশ-শায়বানি জানান, দ্য শায়খা ফাতিমা বিনত মোবারক ইন্টারন্যাশনাল হলি কোরআন কম্পিটিশন বর্তমান বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কোরআন প্রতিযোগিতা। এই বছর ১৪ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেওয়া হবে। তিনি আশা ব্যক্ত করেন, এই প্রতিযোগিতা মানুষের মধ্যে কোরআন চর্চার আগ্রহ বাড়াবে।

প্রতিযোগিতার তৃতীয় ধাপে কেনিয়ার খানসা হোসাইন আহমদ, আলজেরিয়ার খাওলা আজুজ, দাগিস্তানের ফাতিমাত মাগোমেদোভা, জর্দানের সাজিদা মাহাদ আলী আওয়াদি, উগান্ডার রাহমা বামুওয়ারিয়া কাসোমো, শ্রীলঙ্কার জয়নব নাথা মোহাম্মদ নালিম ও জিবুতির হাওয়া মুহাম্মদ ওয়াইজ উত্তীর্ণ হয়েছেন।

হাওয়া ওয়াইজ বলেন, ‘আমি ১০ বছর বয়সে কোরআন মুখস্থ শুরু করি এবং ১৩ বছরে তা শেষ করি। এর পরও দুই বছর আমি হিফজের জন্য ব্যয় করেছি।’

বিজয়ী ১০ প্রতিযোগীকে যথাক্রমে আড়াই লাখ, দুই লাখ, দেড় লাখ, ৬৫ হাজার, ৬০ হাজার, ৫৫ হাজার, ৫০ হাজার, ৫৪ হাজার, ৪০ হাজার ও ৩৫ হাজার দুবাই দিরহাম দেওয়া হবে। এ ছাড়া যাঁদের উত্তর ৬৯  থেকে ৮০ শতাংশ সঠিক হবে তাঁদেরও পুরস্কৃত করা হবে।

সূত্র : আরব টোয়েন্টিফোর ডটনিউজ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা