kalerkantho

সোমবার । ২২ আষাঢ় ১৪২৭। ৬ জুলাই ২০২০। ১৪ জিলকদ  ১৪৪১

মুসলিমরাই ঈসা (আ.)-এর বেশি অনুসরণ করে : পাদ্রি স্টিভ চক

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুসলিমরাই ঈসা (আ.)-এর বেশি অনুসরণ করে : পাদ্রি স্টিভ চক

পশ্চিমা বিশ্বের চার্চগুলো থেকে ‘ইসলামী শিক্ষা’ ঈসা (আ.)-এর আনীত ধর্মবিশ্বাসের নিকটবর্তী বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাজ্যের একজন খ্রিস্টান পাদ্রি। তুলনামূলক ধর্মতত্ত্বের ওপর দীর্ঘ পড়ালেখার পর তিনি এই মন্তব্য করেন। ওয়াসিস চ্যারিটির প্রতিষ্ঠাতা পাদ্রি স্টিভ চক বলেন, ‘আমি জানি ইসলামের অনেক শিক্ষাই পশ্চিমা গির্জাগুলোর তুলনায় ঈসা (আ.) ও বাইবেলের নিকটবর্তী।’

তিনি বলেন, ঈসা (আ.)-এর ব্যাখ্যা অনুসরণ করলে আল্লাহর পরিচয় লাভ করা যাবে। ইসলাম ও খ্রিস্টধর্ম পরস্পর থেকে অনেক ভিন্ন। উভয়ের বিশ্বাসের ফারাকও বিস্তর। তবে এটা নিশ্চিতভাবে বলা যায়, উভয় ধর্মের অনুসারীরা অভিন্ন ঈশ্বরের উপাসনা করে।

চক তাঁর নতুন বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে এই মন্তব্য করেন। যাতে তিনি দেখাতে চেয়েছেন, মুসলিম ও খ্রিস্টান উভয় সম্প্রদায় অভিন্ন স্রষ্টার উপাসনা করে। যদিও তারা তাঁকে ভিন্ন ভিন্ন নামে ডাকে বা স্মরণ করে। তিনি বলেন, মূলত আমরা একই ঈশ্বরের ভিন্ন ভিন্ন প্রতিরূপের উপাসনা করি।

চক ইসলামী বিশ্বাস ও মূল্যবোধকে অত্যন্ত হূদয়গ্রাহী উল্লেখ করে বলেন, এখানে উভয় সম্প্রদায়ের জন্য একমত হওয়ার অনেক সুযোগ রয়েছে। ইসলামে খ্রিস্টান মতাদর্শীদের জন্য প্রশস্ত ও উন্মুক্ত প্রাঙ্গণ রয়েছে।

পাদ্রি স্টিভ চক বলেন, আমরা যেটা বুঝতে পারি না, তা হলো মিডিয়া আমাদের কাছে ইসলাম সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য বিক্রি করে। ফলে এই সংকট তৈরি হয়েছে যে যারা মুসলিমদের কাছ থেকে দেখে না, তারা মুসলিমদের ভয় পায়। যদি আমরা বলি, ইসলাম একটি মন্দ ধর্ম, তারা ভিন্ন প্রভুর উপাসনা করে এবং খ্রিস্টধর্ম জান্নাতে যাওয়ার একমাত্র পথ, তবে আমরা তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

উগ্রবাদের ব্যাখ্যা তিনি বলেন, নেতিবাচক উগ্রতা ইসলামের সমস্যা নয়। এটি একটি মানসিক সমস্যা।

 

খ্রিস্টান টুডে থেকে আবরার আবদুল্লাহর অনুবাদ

 

মন্তব্য