kalerkantho

শুক্রবার । ১৯ জুলাই ২০১৯। ৪ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৫ জিলকদ ১৪৪০

আপনি যা জানতে চেয়েছেন

মা-বাবার নামে কসম করা কি বৈধ?

১২ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রশ্ন : আমার এক বন্ধু আমাকে মায়ের কসম দিয়ে তার একটি কাজ করে দিতে বলল। আমি কাজটি করতে অস্বীকৃতি জানালে আমার অন্য বন্ধুরা বলল, কাজটি না করলে আমার মায়ের কোনো ক্ষতি হতে পারে। তিনি অসুস্থ হয়ে যেতে পারেন বা কোনো বড় ধরনের বিপদ চলে আসতে পারে। ইসলামে কি আদৌ এর কোনো ভিত্তি আছে? মা-বাবার কসম করার ক্ষেত্রে ইসলামের বিধান কী?

মো. ফজলে রাব্বী রায়হান, মহাখালী।

 

উত্তর : আল্লাহ ছাড়া অন্য কারো নামে কসম করা হারাম। সুতরাং আপনার বন্ধুর দেওয়া মায়ের কসমের কোনো গ্রহণযোগ্যতা ইসলামে নেই। আপনি সেই কাজটি করতে বাধ্য নন। পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ ইরশাদ করেছেন, ‘আর তোমরা আনুগত্য করো না প্রত্যেক এমন ব্যক্তির, যে বেশি কসমকারী, লাঞ্ছিত।’ (সুরা : কলম, আয়াত : ১০) উল্লিখিত আয়াতে যারা বেশি কসম করে এবং মিথ্যা কসম করে তাদের থেকে দূরে থাকতে বলা হয়েছে। সুতরাং আপনি আপনার বন্ধুর দেওয়া কসম অনুযায়ী কাজ না করলে আপনার মায়ের কোনো ক্ষতিও হবে না ইনশাআল্লাহ। তবে আপনার বন্ধুকে এটা জানিয়ে দেওয়া উচিত। এভাবে মানুষকে অনর্থক কসম করানো হারাম কাজ। আল্লাহ ছাড়া অন্য কারো নামে কসম করাকে হাদিস শরিফে শিরকও বলা হয়েছে। হজরত সাঈদ ইবনু আবু উবাইদাহ (রহ.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আবদুল্লাহ ইবনু উমার (রা.) এক ব্যক্তিকে এভাবে শপথ করতে শুনলেন ‘না! এ কাবার শপথ।’ তখন ইবনু উমার (রা.) তাঁকে বলেন, আমি রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে বলতে শুনেছি, যে ব্যক্তি আল্লাহ ছাড়া অন্য কিছুর নামে শপথ করে, সে শিরক করল। (আবু দাউদ, হাদিস : ৩২৫১)

মন্তব্য