kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কর ফাঁকি রোধে এনবিআর পাচ্ছে ছয় স্ক্যানার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ নভেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কর ফাঁকি রোধে এনবিআর পাচ্ছে ছয় স্ক্যানার

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) বিভিন্ন কাস্টম হাউস ও দপ্তরের জন্য ছয়টি কনটেইনার স্ক্যানার সিস্টেম কিনছে সরকার। এতে ব্যয় হবে ৩২৭ কোটি টাকা।

বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে স্ক্যানার কেনার প্রস্তাবটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বৈঠকে এক লাখ ৪০ হাজার মেট্রিক টন সার ক্রয়ের পৃথক চারটি প্রস্তাবও অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সব মিলিয়ে এক হাজার ৩০৪ কোটি ১৩ লাখ ৩৭ হাজার ৬৫৩ টাকা ব্যয়ে পাঁচটি প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি।

বৈঠকে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সভাপতিত্ব করলেও গত কয়েক সপ্তাহের ধারাবাহিকতায় গতকালও সংবাদ সম্মেলনে আসেননি তিনি। মন্ত্রীর পরিবর্তে সাধারণত মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন অতিরিক্ত সচিব সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। গতকালের সভা শেষে তা-ও করা হয়নি। তার পরিবর্তে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে একটি ওয়ার্ড ফাইলে বৈঠকের আলোচ্যসূচি জানিয়ে দেওয়া হয় সাংবাদিকদের।

সেই নথির তথ্য অনুযায়ী, বিভিন্ন কাস্টম হাউস ও দপ্তরের জন্য ছয়টি পূর্ণাঙ্গ কনটেইনার স্ক্যানার সিস্টেম কেনার প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে ক্রয় কমিটি। এতে ব্যয় হবে ৩২৭ কোটি এক লাখ ২৪ হাজার ৩৬৫ টাকা। নিউটেক কম্পানি লিমিটেড এগুলো সরবরাহ করবে।

এর আগে বাণিজ্য সহজীকরণ এবং পণ্য খালাস দ্রুততার পাশাপাশি চোরাচালান ও শুল্ক কর ফাঁকি রোধে কনটেইনার স্ক্যানার কেনার কথা অর্থমন্ত্রী বিভিন্ন সময় সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন।

কৃষকদের ব্যবহারের জন্য চারটি পৃথক প্রস্তাবে এক লাখ ৪০ হাজার মেট্রিক টন সার কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির আওতায় কানাডা থেকে অষ্টম লটে ৫০ হাজার মেট্রিক টন মিউরেট-অব-পটাশ (এমওপি) সার আমদানি করা হবে। প্রতি মেট্রিক টন সারের দাম পড়বে ৭৭৮.১৫ ডলার। সে হিসাবে ৫০ হাজার মেট্রিক টন এমওপি সার আমদানিতে ব্যয় হবে তিন কোটি ৮৯ লাখ সাত হাজার ৫০০ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪১৪ কোটি ১৩ লাখ ১৪ হাজার ৩০০ টাকা।

সভায় রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ষষ্ঠ লটে ৩০ হাজার মেট্রিক টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে মোট ব্যয় হবে এক কোটি ৭৭ লাখ ৫০ হাজার ১০০ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৮৮ কোটি ৯৩ লাখ ২০ হাজার ৬৪৪ টাকা।

কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কম্পানি লিমিটেডের (কাফকো) কাছ থেকে নবম লটে ৩০ হাজার মেট্রিক টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার ক্রয়ের একটি প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রতি মেট্রিক টন সারের দাম পড়বে ৫৭৯.৭৫ ডলার। সে হিসাবে এতে মোট ব্যয় হবে এক কোটি ৭৩ লাখ ৯২ হাজার ৫০০ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৮৫ কোটি ১২ লাখ ৫৭ হাজার ৭০০ টাকা।

এ ছাড়া রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে কাতার থেকে ১১তম লটে ৩০ হাজার মেট্রিক টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রতি মেট্রিক টন সারের দাম ধরা হয়েছে ৫৯১.৬৭ ডলার। সে হিসাবে মোট ব্যয় হবে এক কোটি ৭৭ লাখ ৫০ হাজার ১০০ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৮৮ কোটি ৯৩ লাখ ২০ হাজার ৬৪৪ টাকা।



সাতদিনের সেরা