kalerkantho

সোমবার । ২৮ নভেম্বর ২০২২ । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দক্ষ পেশাজীবী নিতে আমিরাতের ভিসা নিয়মে পরিবর্তন

বাণিজ্য ডেস্ক   

৬ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনা-পরবর্তী অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার ও প্রবৃদ্ধি জোরালো করতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে দক্ষ পেশাজীবী আনতে চায় সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই)। সে লক্ষ্যে ভিসা নিয়মে পরিবর্তন এনেছে দেশটি। যাকে বলা হয়েছে কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় সংস্কার। চলতি বছরের এপ্রিলে আমিরাতের মন্ত্রিসভা নতুন ভিসা নিয়মের প্রস্তাব অনুমোদন করে।

বিজ্ঞাপন

এরপর গত ৩ অক্টোবর থেকে তা কার্যকর করা হয়েছে। ফলে সেখানে কর্মরত প্রবাসী থেকে শুরু করে বিদেশি পর্যটকদের নতুন নিয়মের আওতায় আসতে হবে।

আমিরাত সরকারের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা মেজর জেনারেল সুলতান ইউসুফ আল নাউমি বলেছেন যে এই নতুন ভিসাব্যবস্থা কেবল বিদেশিদের জন্য ভিসা পদ্ধতি ঝামেলামুক্ত এবং সহজই করবে না, যাঁরা দেশটিতে বসবাস বা কাজ চাইছেন, সেই রকম মানুষদেরও সুবিধা দেবে। এটা বিনিয়োগের জন্য আরো ভালো হবে।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে প্রথম গ্রিন ভিসার ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। এ ভিসা পেলে বিদেশিরা পাঁচ বছরের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে থাকতে পারবেন, এর জন্য তাঁদের নাগরিকত্ব নেওয়ার এবং নিয়োগকর্তার সমর্থনের প্রয়োজন নেই। ফ্রিল্যান্সার, দক্ষ কর্মী এবং বিনিয়োগকারীরা এই ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন।

গ্রিন ভিসাধারীরা স্ত্রী বা স্বামী, সন্তান, বাবা-মা, বোন বা ভাইকে সঙ্গে রাখতে পারেন। আর কারো যদি ছেলেসন্তান থাকে, তবে সে ২৫ বছর বয়স পর্যন্ত থাকার সুবিধা পেতে পারে। আগে এই বয়সসীমা ছেলেদের ক্ষেত্রে ছিল ১৮ বছর। একই সঙ্গে নতুন নিয়মে অবিবাহিত নারী বা প্রতিবন্ধী সন্তানের জন্য কোনো বয়সসীমা রাখা হয়নি। কারো ভিসার মেয়াদ শেষ বা বাতিল হয়ে গেলে তাঁকে ছয় মাসের গ্রেস পিরিয়ড দেওয়া হবে।

গোল্ডেন ভিসায় একবারে ১০ বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতে থাকতে পারা যায়। বিনিয়োগকারী, ব্যবসায়ী বা গবেষক, চিকিত্সক, বিজ্ঞানীরা গোল্ডেন ভিসা পেতে পারেন।



সাতদিনের সেরা