kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০২২ । ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পর্যটন অর্থনীতিতে অবদান বাড়ছে

জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সাভারের থিম পার্ক

পর্যটনের পাশাপাশি বিনোদনে আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে ফ্যান্টাসি কিংডম ও নন্দন পার্ক

জাহিদ হাসান সাকিল, সাভার   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সাভারের থিম পার্ক

ব্যস্ততা কাটিয়ে একটু স্বস্তি, আর বিনোদনপ্রেমীদের আনন্দ দিতে ঢাকার খুব কাছে সাভারে পর্যটনকেন্দ্র ছাড়াও গড়ে উঠেছে নানা থিম পার্ক। যেখানে বিভিন্ন রাইড ছাড়াও ছোট পরিসরে প্রকৃতির আদলে তৈরি করা হয়েছে দর্শনীয় স্থান। বিনোদনে সবচেয়ে আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে কনকর্ড এন্টারটেইনমেন্ট কম্পানির ফ্যান্টাসি কিংডম। এর পাশাপাশি নন্দন পার্ক লিমিটেডের নন্দন পার্ক।

বিজ্ঞাপন

ছুটির দিন ছাড়াও প্রতিদিন শত শত দর্শনার্থীর উপস্থিতিতে উৎসবমুখর হয়ে ওঠে এই পার্কগুলো।

তবে কর্তৃপক্ষ বলছে, করোনার দীর্ঘ সময় পার করে নতুন করে পার্ক খোলা হলেও ক্ষতি পুষিয়ে নিতে দীর্ঘ সময় লাগবে; কিন্তু বিদ্যুৎ সমস্যা নতুন করে সংকট তৈরি করেছে। গুনতে হচ্ছে বাড়তি খরচ। বেসরকারি খাতে সহজ শর্তে ঋণ বা প্রণোদনা কোনোটারই সুযোগ মেলেনি। এতে করে দারুণভাবে ব্যাবসায়িক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে।

বাইপাইল-আবদুল্লাহপুর মহাসড়কের সাভারের জামগড়ায় বর্তমানে প্রায় ৫০ একর জায়গাজুড়ে থিম পার্ক ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্স। সকাল ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকে দর্শনার্থীদের জন্য। বর্তমানে এই পার্কে অন্তত ২০ হাজার মানুষের ধারণক্ষমতা রয়েছে। ফ্যান্টাসি কিংডমের থিম পার্কটিতে একই সঙ্গে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার কিংডম, এক্সট্রিম রেসিং (গো কার্ট), রিসোর্ট আটলান্টিসসহ আরো তিনটি বিনোদন সেবা। রয়েছে হেরিটেজ পার্ক।

ফ্যান্টাসি কিংডমে ঢুকলে চমৎকার ল্যান্ড স্কেপিং ও আকর্ষণীয় নানা রাইডস। দুরন্ত গতিতে ছুটে চলা রোমাঞ্চকর অনুভূতি ও শিহরণ জাগানো রাইড রোলার কোস্টার এই পার্কের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাইডগুলোর মধ্যে অন্যতম। রয়েছে রেস্টুরেন্ট রাজা আশু ও রানি লিয়া। যেখানে জায়ান্ট ফেরিস হুইল, জুজু ট্রেন, হ্যাপি ক্যাঙ্গারু, বাম্পার কার, ম্যাজিক কার্পেট, সান্তা-মারিয়া, জিপ অ্যারাউন্ড, পানি অ্যাডভেঞ্চার, ইজি ডিজিসহ ছোট-বড় সবার জন্য মজাদার সব রাইডস।

বিনোদন নিতে এসে দর্শনার্থীদের দেশি-বিদেশি রসনাবিলাসের জন্য রয়েছে তিনতারা মানের রেস্টুরেন্ট আশু ক্যাসল ও ওয়াটার টাওয়ার ক্যাফে।

ওয়াটার কিংডম : সুবিশাল জলরাজ্যে কৃত্রিমভাবে সৃষ্ট সাগরের উত্তাল ঢেউ তৈরি হয় ওয়াটার কিংডমে। এ ছাড়া রাইড ওয়েভ পুল এই পার্কের সবচেয়ে আকর্ষণীয় রাইড। রয়েছে ড্যান্সিং জোনসহ মজাদার সব রাইডস।

এক্সট্রিম রেসিং গো-কার্ট : দেশে প্রথম কনকর্ড এক্সট্রিম রেসিং নিয়ে এসেছে বিশ্বমানের গো-কার্ট রেসিং। ছোট চার চাকার প্রায় মাটি ছুঁই ছুঁই এই রেসিং কারগুলো দেবে রেসিংয়ের এক অবিস্মরণীয় অভিজ্ঞতা।

কনকর্ড এন্টারটেইনমেন্ট কম্পানি লিমিটেডের নির্বাহী পরিচালক (বিপণন) অনুপ কুমার সরকার বলেন, ‘করোনার ধাক্কাটা কাটিয়ে ওঠাই বড় চ্যালেঞ্জ। যে পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে, তা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে সরকারের সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজন। যেমন পার্কের জন্য বিদেশ থেকে যেসব রাইড বা অন্য জিনিসপত্র আনতে হয়, সে ক্ষেত্রে আগামী অন্তত তিন বছর ট্যাক্স মওকুফ করতে পারে। এ ছাড়া এই খাত টিকিয়ে রাখতে প্রণোদনাও খুবই দরকার। সুযোগ পেলে পার্কগুলো টিকে থাকবে ও নতুন বিনিয়োগকারীরাও আগ্রহী হবেন। রক্ষণাবেক্ষণসহ সব ক্ষেত্রে খরচ বেড়েছে। ফলে পার্কের ব্যয়ের সঙ্গে আয়ের মিল রাখা কষ্টকর হয়ে পড়ছে। ’   

নন্দন পার্ক : ২০০৩ সালে সাভারের নবীনগর-চন্দ্রা হাইওয়ের বাড়ইপাড়া এলাকায় নন্দন পার্ক গড়ে তোলা হয়। সবুজে ঘেরা প্রায় ৩৩ একর জায়গাজুড়ে এই পার্কে নিরাপদ ও আন্তর্জাতিক মানের বিভিন্ন দেশি-বিদেশি রাইড, ফাইভ-ডি মুভি থিয়েটার, ওয়াটার ওয়ার্ল্ড, রেস্টুরেন্ট, রিসোর্টসহ নানা আয়োজন রয়েছে বিনোদনপ্রেমীদের জন্য। আর্কষণীয় রাইডের মধ্যে জপি স্লাইড, রক ক্লাইম্বিং বাম্পার কার, ওয়াটার কোস্টার, মুন রকার, কেবল কার, পেডেল বোট ইত্যাদি। ’



সাতদিনের সেরা