kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিকল্প মুদ্রায় পেমেন্ট

ভারতের সঙ্গে রুপিতে বাণিজ্যে আগ্রহী মধ্যপ্রাচ্য-জাপান

বাণিজ্য ডেস্ক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতের সঙ্গে রুপিতে বাণিজ্যে আগ্রহী মধ্যপ্রাচ্য-জাপান

আন্তর্জাতিক লেনদেন পেমেন্ট রুপিতে প্রদানের জন্য সম্প্রতি বাণিজ্যনীতিতে সংশোধন এনেছে ভারত। রাশিয়ার পণ্য আমদানিতে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার আশঙ্কার পাশাপাশি ডলারের বাজার অস্থির হওয়ায় স্থানীয় মুদ্রায় লেনদেনে আগ্রহী ভারত। এ অবস্থায় দেশটির সঙ্গে রুপিতে লেনদেনে আগ্রহ দেখাচ্ছে রাশিয়া, ইরান, সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই), সৌদি আরব, জাপানসহ আরো অনেক আমদানিকারক দেশ।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ সুদের হার বাড়ানোয় ডলার আরো শক্তিশালী হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

এতে মুদ্রাবাজারে অস্থিরতা তৈরির পাশাপাশি বাড়ছে খাদ্য ও জ্বালানি পণ্যের দামও। গত সোমবারও ভারতীয় রুপির দাম কমে হয়েছে প্রতি ডলার ৮১.৬৭ রুপি। একইভাবে স্থানীয় মুদ্রার দরপতন হচ্ছে অন্য দেশগুলোতেও। তাই ডলার বহির্ভূত লেনদেনে আগ্রহ দেখাচ্ছে দেশগুলো।

ভারতের শিল্প গ্রুপ টি অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়ার মহাসচিব প্রবীর ভট্টাচার্য রুশ গণমাধ্যম স্পুটনিককে বলেন, ‘পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞায় পড়া রাশিয়া ও ইরানের মতো দেশের আমদানিকারকরা ভারতীয় পণ্যের জন্য রুপিতে মূল্য পরিশোধ করতে চাইছেন। প্রকৃতপক্ষে অর্থনৈতিক অবরোধ এড়াতে তাঁরা এই পথে বাণিজ্য এগিয়ে নিতে চান। ’

প্রবীর ভট্টাচার্য আরো বলেন, ‘প্রধান চা আমদানিকারক দেশ—যেমন সংযুক্ত আরব আমিরাত, সৌদি আরব, জাপান, শ্রীলঙ্কা এবং চীনও রুপিতে মূল্য পরিশোধের সুযোগ কাজে লাগাতে চাইছে। কারণ মার্কিন ডলারের ক্ষেত্রে এর জন্য বিশ্বব্যাপী এক প্রকার শুল্ক দিতে হয়। ’

অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মার্কিন ডলারের বিকল্প অনুসন্ধান এখন সময়ের প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভারতীয় অর্থনৈতিক পরামর্শক গ্রুপ স্বদেশি জাগরণ মঞ্চের সহ-আহ্বায়ক অশ্বনী মহাজনের মতে, বৈদেশিক বাণিজ্য এগিয়ে নিতে ভারতের এখন ডলারের বিকল্প খুঁজে বের করা প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে। আগামী মাস ও বছরগুলোতে রুপিতে বিদেশি লেনদেন প্রসারিত হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। সূত্র : টেলিগ্রাফ



সাতদিনের সেরা