kalerkantho

শুক্রবার । ১ জুলাই ২০২২ । ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ । ১ জিলহজ ১৪৪৩

তিন মাসে নতুন কোটিপতি হিসাব বেড়েছে ১৬২১টি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিশ্ববাজারে পণ্যের দাম বৃদ্ধি ও ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের ফলে দেশের মূল্যস্ফীতি পরিস্থিতিতেও ২০২২ সালের প্রথম তিন মাসে কোটি টাকার বেশি আমানতকারী ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সংখ্যা বেড়েছে এক হাজার ৬২১টি। এই সংখ্যা একদিকে যেমন দেশের উন্নয়ন ও আয় বাড়ার প্রমাণ দিচ্ছে, অন্যদিকে এটি বৈষম্য বৃদ্ধিরও দলিল। বাংলাদেশ ব্যাংকের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। বর্তমানে কোটিপতি অ্যাকাউন্টের সংখ্যা এক লাখ তিন হাজার ৫৯৭।

বিজ্ঞাপন

২০২১ সালের ডিসেম্বরের শেষে এ সংখ্যা ছিল এক লাখ এক হাজার ৯৭৬।

২০২০ সালের মার্চে দেশে করোনাভাইরাস প্রকোপ শুরুর সময় দেশের ব্যাংকগুলোতে এক কোটি টাকার বেশি থাকা অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ছিল ৮২ হাজার ৬২৫। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, এর এক বছর পর ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে এ সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে যায়।

এসব অ্যাকাউন্টে আমানতের পরিমাণ মার্চ শেষে ছয় লাখ ৬৩ হাজার ৫০৫ কোটি টাকা। ডিসেম্বরে জমার পরিমাণ ছিল ছয় লাখ ৫৩ হাজার ৮৫৮ কোটি টাকা। অর্থাৎ তিন মাসে কোটিপতিদের আমানত বেড়েছে ৯ হাজার ৬৪৭ কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিসাবে দেখা যায়, মোট ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তুলনায় কোটিপতিদের অ্যাকাউন্ট সংখ্যা ১ শতাংশও নয়; কিন্তু এসব অ্যাকাউন্টে মোট আমানতের প্রায় ৪৪ শতাংশ টাকা জমা আছে।

এ ছাড়া চলতি বছরের মার্চ মাস শেষে ব্যাংক খাতে মোট অ্যাকাউন্ট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২.৭৩ কোটি এবং এসব অ্যাকাউন্টে মোট আমানত জমা আছে ১৫ লাখ ১৪ হাজার ৮৯৫ কোটি টাকা।

ব্যাংকাররা বলছেন, কোটি টাকার ব্যাংক হিসাবের সবই ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট নয়। এখানে প্রাতিষ্ঠানিক অ্যাকাউন্টও আছে। সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংস্থার অ্যাকাউন্টও আছে।

২০১০ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত গত ১০ বছরে দেশে ধনকুবেরের (৫০ লাখ ডলারের বেশি সম্পদের অধিকারী) সংখ্যা বেড়েছে গড়ে ১৪.৩ শতাংশ হারে, যা এই সময়ে সারা বিশ্বে সবচেয়ে বেশি।



সাতদিনের সেরা