kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ১৯ মে ২০২২ । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  

রপ্তানি বাণিজ্যে অবদান

সিআইপি হলেন ১৭৬ ব্যবসায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিআইপি হলেন ১৭৬ ব্যবসায়ী

রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে সিআইপি নির্বাচিতদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। ছবি : কালের কণ্ঠ

পণ্য রপ্তানিতে অবদান রাখায় দেশের ১৩৮ জন ব্যবসায়ীকে বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (সিআইপি) হিসেবে নির্বাচন করেছে সরকার। এ ছাড়া পদাধিকার বলে ট্রেড ক্যাটাগরি থেকে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের ৩৮ পরিচালকও পেয়েছেন সিআইপি মর্যাদা। দুই ধরনের সিআইপি মিলিয়ে ২০১৮ সালের জন্য মোট ১৭৬ জন উৎপাদক-রপ্তানিকারককে সম্মাননা জানিয়েছে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি)। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তাঁদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ও এফবিসিসিআই সভাপতি জসিম উদ্দিন।

বিজ্ঞাপন

দেশের সফল রপ্তানিকারক, শিল্পপতি ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে জাতীয় পর্যায়ে উৎসাহ, উদ্দীপনা ও পারস্পরিক সুষ্ঠু প্রতিযোগিতার পরিবেশ সৃষ্টি করার পাশাপাশি তাঁদের রপ্তানি বাণিজ্যে উৎসাহিত করতে প্রতিবছর সিআইপি কার্ড দেয় ইপিবি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, ‘দেশকে উন্নত করতে রপ্তানি বৃদ্ধির বিকল্প নেই। রপ্তানি আয় বাড়াতে আমাদের সক্ষমতা অর্জন করতে হবে। রপ্তানি বাণিজ্যে উৎসাহিত করার জন্য আজ (বৃহস্পতিবার) ২০১৮ সালের জন্য মনোনীত ১৭৬ জন ব্যবসায়ীকে সিআইপি কার্ড দেওয়া হচ্ছে। বর্তমান সরকার সব সময়ই ব্যবসায়ীদের উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছে। আগামী দিনেও এ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। ’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ব্যবসা-বাণিজ্যে এগিয়ে যেতে আমাদের সামনে সমস্যা অনেক, বাধা অনেক। দক্ষতার সঙ্গে এগুলোকে অতিক্রম করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। অল্পসংখ্যক পণ্য নিয়ে বিশ্ব রপ্তানি বাজারে ভালো করা যাবে না। এ জন্য রপ্তানি পণ্যের সংখ্যা বাড়াতে হবে, একই সঙ্গে বাজার সম্প্রসারণ করতে হবে। বিশ্বের অনেক দেশ আছে, যেখানে বাংলাদেশের তৈরি পণ্যের প্রচুর চাহিদা আছে। সেখানে আমাদের রপ্তানি করতে হবে। ’



সাতদিনের সেরা