kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ২৬ মে ২০২২ । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৪ শাওয়াল ১৪৪

মোংলা বন্দরে নিলামে উঠল ১৩২ গাড়ি

দরপত্র দাখিল করেছেন ৪০ ক্রেতা

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

১৯ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোংলা বন্দরে নিলামে উঠল ১৩২ গাড়ি

মোংলা বন্দরের কার ইয়ার্ডে দীর্ঘদিন ধরে পড়ে আছে ২ হাজার ৮৮৪ আমদানীকৃত গাড়ি। ছবি : কালের কণ্ঠ

মোংলা বন্দরের কার ইয়ার্ড ও শেডে দীর্ঘদিন ধরে পড়ে থাকা দুই হাজার ৮৮৪টি আমদানীকৃত রিকন্ডিশন্ড গাড়ির মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার বিভিন্ন মডেলের ১৩২টি গাড়ি নিলামে উঠেছে। এই গাড়িগুলো কিনতে ৪০ জন আগ্রহী ক্রেতা নিলামে অংশগ্রহণ করেন বলে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে। আগ্রহী ক্রেতাদের মধ্যে বেশির ভাগই গাড়ি আমদানিকারক।

কাস্টম হাউসের নিলাম শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা আবু বাসার সিদ্দিকী জানান, ১৬টি মডেলের ১৩২টি গাড়ি নিলামের জন্য তোলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এর মধ্যে রয়েছে হাইয়েস, নোয়া, প্রাডো, নিশান পেট্রল, জাম ট্রাকসহ অন্যান্য গাড়ি। তিনি বলেন, ‘মোংলা বন্দর দিয়ে আমদানি করা এসব গাড়ি ৩০ দিনের মধ্যে ছাড় করানোর নিয়ম থাকলেও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা তা করেননি। ফলে নিয়মানুযায়ী পর্যায়ক্রমে নিলামে ওঠানো হচ্ছে ওই সব গাড়ি। এর আগে গত বছর ২১ বার নিলামে ওঠানো হয়েছিল প্রায় দুই হাজার গাড়ি। ’ নিলামে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সর্বোচ্চ দরদাতার তালিকা প্রকাশের পর এই গাড়িগুলো বিক্রি হবে।

এখন সর্বোচ্চ দরদাতাকে তাঁদের নিলামে ক্রয় করা গাড়ি পরবর্তী সময়ে বুঝিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান কাস্টমস কর্তৃপক্ষের নিলাম শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা মো. আবু বাসার সিদ্দিক। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের ট্রাফিক ম্যানেজার মো. মোস্তফা কামাল বলেন, ‘দীর্ঘদিন কাস্টমস কর্তৃপক্ষ বন্দরে আমদানীকৃত গাড়ি খালাস ও নিলাম না দেওয়ায় জেটি এলাকায় গাড়ির জট বা পণ্য রাখায় সমস্যা তৈরি হয়। তবে নিলামপ্রক্রিয়া চালু রাখলে গাড়ি বা অন্যান্য পণ্য রাখতে ব্যবসায়ীদের সুবিধাও হবে, অন্যদিকে সঠিক সময় সরকারের রাজস্ব আদায় করা সম্ভব হবে। ’ বর্তমানে বন্দর জেটির ইয়ার্ড ও শেডে দুই হাজার ৮৮৪টি গাড়ি রয়েছে বলেও জানান তিনি।

মোংলা কাস্টম হাউসের ডেপুটি কমিশনার মো. মেহবুব হক বলেন, ‘করোনা মহামারির কারণে কিছুটা বিলম্ব হলেও আমরা নিলামপ্রক্রিয়া চালিয়ে যাচ্ছি। গাড়ি থেকেই আমাদের ৬০ শতাংশ রাজস্ব পেয়ে থাকি। তাই মোংলা কাস্টম হাউসের রাজস্ব খাতে গতি আনতে এখন থেকে প্রতি মাসেই দুটি করে নিলামপ্রক্রিয়া চালিয়ে যাব। তাই এ মাসে ১/২০২২ নামের নিলাম সেল সমাপ্ত করা হলো। ১৩৭টি লটের বিপরীতে ৪০টি বিট পড়েছে। এখন নিয়মানুযায়ী এই বিটগুলো যাচাই-বাছাই করে যারা সর্বোচ্চ দরদাতা হবে, তাদের নামের তালিকা কাস্টমস কার্যালয়ে টাঙিয়ে দেওয়া হবে। ’



সাতদিনের সেরা