kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ মাঘ ১৪২৮। ২৫ জানুয়ারি ২০২২। ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ব্যবসা সহজীকরণে আরো জোর দেওয়ার তাগিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যবসা সহজীকরণে আরো জোর দেওয়ার তাগিদ

রাজধানীতে গতকাল অ্যামচেমের ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে আগত অতিথিরা

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য গত ২৫ বছরে বেশ ইতিবাচকভাবেই এগিয়েছে। এ সময় বিপুল পরিমাণ বিনিয়োগও এসেছে। এই বাণিজ্য আরো বাড়ানোর সম্ভাবনা আছে। তবে এ জন্য বাংলাদেশকে ব্যবসা সহজীকরণসহ শ্রম অধিকার নিশ্চিত করতে আরো গুরুত্ব দিতে হবে বলে মনে করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।

বিজ্ঞাপন

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে আমেরিকান চেম্বার অব কমার্স ইন বাংলাদেশের (অ্যামচেম) ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। অ্যামচেম সভাপতি সৈয়দ এরশাদ আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। সম্মানিত অতিথি ছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে শুল্ক প্রত্যাহারসহ জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত মোকাবেলায় বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলে নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও বাঁধ নির্মাণে মার্কিন বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগ করতে পারেন। ’

তিনি আরো বলেন, ‘কভিড সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে সহায়তা দিয়ে আসছে। বাংলাদেশ যখন টিকার সংকটে পড়ে তখন ৫৫ লাখ টিকা দিয়েছিল। এখন আরো দুই কোটি ৯০ লাখ টিকার প্রতিশ্রুতি পেয়েছি। ’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্র থেকে সবচেয়ে বেশি তুলা আমদানি করে। কিন্তু সেই তুলা থেকে উৎপাদিত পোশাক যুক্তরাষ্ট্রে রপ্তানির ক্ষেত্রে ১৫.৬ শতাংশ শুল্ক দিতে হয়, এটা পীড়াদায়ক। যুক্তরাষ্ট্রের তুলা ব্যবহার করে উৎপাদিত পোশাক রপ্তানির ক্ষেত্রে শুল্ক প্রত্যাহার করা উচিত। ’

সালমান এফ রহমান বলেন, ‘গত ১২ বছরে দেশের অর্থনীতিতে ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে। এ জন্য বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বিপুল বিনিয়োগ করা হয়েছে। ফলে বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ এখন আকর্ষণীয় জায়গা। ’



সাতদিনের সেরা