kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জ্বালানি তেলের দাম নিয়ে অর্থমন্ত্রী

বিশ্ববাজারে স্থিতিশীল হলে ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিশ্ববাজারে স্থিতিশীল হলে ব্যবস্থা

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম এখনো স্থিতিশীল হয়নি। দ্রুত ওঠানামা করছে। আন্তর্জাতিক বাজার স্থিতিশীল হলে সরকারও দেশে ব্যবস্থা নেবে। এ ব্যাপারে জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন আমরা সেটাই অনুসরণ করব।’ গতকাল বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে অনলাইন ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারে কোনো দিন জ্বালানি তেলের দাম ২০ ডলার কমে তো, পরের দিন দুই ডলার বাড়ে। যখন তেলের দাম আন্তর্জাতিক বাজারে কমে স্থিতিশীল হবে, তখন আমরাও সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।’

এদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বাড়ার প্রেক্ষাপটে গত ৩ নভেম্বর ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়িয়ে ৮০ টাকা নির্ধারণ করে সরকার। তারপর থেকেই আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমতে থাকায় এফবিসিসিআইসহ ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সংগঠন তেলের দাম কমোনোর দাবি করে আসছে।

প্রসঙ্গ অর্থপাচার : সম্প্রতি জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী বলেছেন, ‘তাঁর কাছে অর্থপাচারকারীদের কোনো তালিকা নেই। বিরোধী দলের সংসদ সদস্যদের কাছে পাচারকারীদের তালিকা চান তিনি। গতকাল এর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, পত্র-পত্রিকায় কিছু নাম আমি পেয়েছি, যাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থা কাজ করছে। আইনগত ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে। গত দুই বছরে অর্থপাচার বন্ধে কী ব্যবস্থা নিয়েছি, তার অগ্রগতি কী এবং কতজন শাস্তি পেয়েছে, সে তথ্য তুলে ধরা হবে।’

তিনি বলেন, ‘অর্থপাচারকারীদের বিরুদ্ধে আমি কোনো ব্যবস্থা নিতে পারব না। ব্যবস্থা নেবে আইন মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো।’

অর্থপাচারকারীদের সম্পর্কে জানতে অর্থমন্ত্রীর নিজস্ব কোনো ম্যাকানিজম রয়েছে কি না—এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমার কোনো ম্যাকানিজম নেই। ম্যাকানিজম রয়েছে সরকারের। কেউ পাচার করলে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়, তাকে গ্রেপ্তার করে জেলে নেওয়া হয়। বিচারব্যবস্থার মাধ্যমে তাদের শাস্তি দেওয়া হয়।’



সাতদিনের সেরা