kalerkantho

শনিবার । ১৫ মাঘ ১৪২৮। ২৯ জানুয়ারি ২০২২। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

কর অঞ্চলে মাসব্যাপী উৎসব শুরু আজ

মেলার আদলে মিলবে করসেবা

৩১ কর অঞ্চলে ৬৪৯টি সার্কেলে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত আয়কর রিটার্ন গ্রহণ করা হবে

সজীব আহমেদ   

১ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মেলার আদলে মিলবে করসেবা

করোনা মহামারির কারণে গতবারের মতো এবারও আয়কর মেলার আয়োজন করছে না জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তবে করদাতাদের সুবিধার্থে কর অঞ্চলগুলো সাজানো হয়েছে মেলার আদলেই। মেলার সব সুযোগ-সুবিধাই পাওয়া যাবে কর অঞ্চলে। আজ সোমবার থেকে শুরু হয়ে পুরো নভেম্বর মাস এ আয়কর মেলা চলবে।

বিজ্ঞাপন

কর আদায়ের ব্যবস্থা আরো সহজ করতে এবার প্রতিটি কর অঞ্চলে অনলাইনে রিটার্ন জমা নেওয়ার ব্যবস্থাও করেছে এনবিআর। ৩১টি কর অঞ্চলে ৬৪৯টি সার্কেলে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত আয়কর রিটার্ন গ্রহণ করা হবে। তবে কয়েক জায়গায় বিশেষ সেবা বুথ দেওয়া হয়েছে। যেমন—ঢাকায় সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য কর অঞ্চল ছাড়াও সচিবালয়ে একটি বুথ দেওয়া হয়েছে।

এনবিআর বলছে, দেশে এখনো করোনার প্রভাব রয়ে গেছে। মেলায় যেহেতু বিপুল লোকসমাগম হয়, তাই কোনো ধরনের ঝুঁকি নেওয়া হবে না। সব কিছু স্বাভাবিক হলে আগামী বছর থেকে মেলা আবার শুরু হবে। তবে দেশের সব কর অঞ্চলে নভেম্বর মাসজুড়ে কর মেলার পরিবেশে সেবা দেওয়া হবে।

গতকাল রবিবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় কয়েকটি কর অঞ্চল ঘুরে দেখা যায়, আয়কর মেলার আদলে সাজানো হয়েছে কর অঞ্চলগুলো। আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া উপলক্ষে প্রতিটি কর অঞ্চল বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুন দিয়ে সাজানো হয়েছে, করা হয়েছে আলোকসজ্জাও। বেশির ভাগ কর অঞ্চলে মেলার আদলে আলাদা আলাদা বুথে করদাতাদের বিনা মূল্যে ই-টিআইএন নিবন্ধন ও পুনর্নিবন্ধন, রিটার্ন পূরণে সহায়তা, অনলাইনে রিটার্ন দাখিলের ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড প্রদানসহ সব ধরনের আয়কর সেবা প্রদানের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

কর অঞ্চল-৬-এ গিয়ে দেখা যায়, ভবনটির প্রবেশপথ থেকে শুরু করে পুরো কর অঞ্চল নান্দনিকভাবে সাজানো হয়েছে। রাজস্ব প্রদানে উৎসাহিত করতে রং-বেরঙের প্ল্যাকার্ড, ব্যানার টানানো আছে। কর তথ্য ও সেবা কেন্দ্র খোলা হয়েছে। কর অঞ্চল-৪-এ গিয়েও দেখা যায়, প্যান্ডেল সাজিয়ে রিটার্ন গ্রহণের জন্য ছয়টি বুথ করা হয়েছে। কর অঞ্চল-৬-এর কর কমিশনার মোহাম্মদ জাহিদ হাসান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা এবারও করোনার কারণে সরাসরি মেলার আয়োজন করতে পারছি না। তবে মিনি মেলার আদলে প্রতিটি কর অঞ্চলেই আয়োজন করা হয়েছে। তাই কর অঞ্চলগুলোতেই মেলার সুবিধা পাবে করদাতারা। আশা করছি, সারা দেশে ২৮ থেকে ৩০ লাখ করদাতা রিটার্ন জমা দেবে। এর মধ্যে কর অঞ্চল-৬-এ রিটার্ন জমা হবে এক লাখের বেশি। ’



সাতদিনের সেরা