kalerkantho

বুধবার । ১১ কার্তিক ১৪২৮। ২৭ অক্টোবর ২০২১। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আইএমএফের রাজস্ব পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন

করোনায় বিশ্বে ঋণের বোঝা বেড়েছে ১৪%

বাণিজ্য ডেস্ক   

১৪ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় বিশ্বে ঋণের বোঝা বেড়েছে ১৪%

করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে বেড়েছে ঋণের বোঝা। ২০২০ সালে বিশ্বে সরকারি-বেসরকারি ঋণ ১৪ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২৬ ট্রিলিয়ন ডলার, যা আগের বছরের চেয়ে ২৭ ট্রিলিয়ন ডলার বেশি। এ অবস্থায় দেশগুলোকে রাজস্ব ব্যয় সুসংহতকরণের পরামর্শ দিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। গতকাল বুধবার প্রকাশিত রাজস্ব মনিটর রিপোর্টে এই আহ্বান জানায় সংস্থাটি।

এতে বলা হয়, সরকারি ঋণ বেড়ে হয়েছে ৮৮ ট্রিলিয়ন ডলার, যা জিডিপির ১০০ শতাংশের কাছাকাছি। আইএমএফের রাজস্ববিষয়ক বিভাগের পরিচালক ভিটর গ্যাসপর বলেন, ‘আশা করা যায় এসব ঋণ ধীরে ধীরে কমবে।’ তিনি বলেন, ‘অতিরিক্ত বেসরকারি ঋণ সরকারি ঋণে পরিণত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। তাই দেশগুলোকে নিজস্ব পরিস্থিতি অনুযায়ী রাজস্বনীতিকে সংশোধন করে নিতে হবে।

ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে যে অর্থনৈতিক ব্যবধান ছিল, তা করোনার কারণে আরো বেড়েছে জানিয়ে গ্যাসপার বলেন, ‘দরিদ্র দেশগুলো করোনাপূর্ববর্তী অর্থনৈতিক অবস্থায় ফিরতে কয়েক বছর লেগে যাবে ধনীদের সঙ্গে টিকাপ্রাপ্তির পার্থক্যের কারণে। এসব চ্যালেঞ্জের কারণে স্বল্পোন্নত দেশগুলোর প্রবৃদ্ধি কয়েক বছর শ্লথ থাকবে।

আইএমএফের প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনা মহামারিতে অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে দেশগুলো অপ্রত্যাশিত অঙ্কের প্রণোদনা দিয়েছে। ব্যাপক সরকারি সহায়তার কারণে করোনার অর্থনৈতিক ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। এ অবস্থায় সরকারগুলোকে আরো বেশি টেকসই বাজেটে ফিরে যাওয়ার পরিকল্পনা করতে হবে। যার মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের আস্থা অর্জন করা যাবে। প্রতিটি দেশকে রাজস্ব সুংসহতকরণের যথাযথ সময় এবং গতি নির্ধারণ করতে হবে।

গ্যাসপর বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে যে বিপুল পরিমাণ সহায়তা দিয়েছে তা যদি পুরোপুরি বাস্তবায়ন করা যায় তবে বিশ্ব জিডিপিতে ক্রমবর্ধমান হারে ২০২১ থেকে ২০২৬ সাল পর্যন্ত ৪.৬ ট্রিলিয়ন ডলার যোগ করতে পারে।’ সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা