kalerkantho

বুধবার । ৪ কার্তিক ১৪২৮। ২০ অক্টোবর ২০২১। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিশ্ব পর্যটন দিবস আজ

বিদেশিদের সামনে দেশকে তুলে ধরার সুযোগ

বাণিজ্য ডেস্ক   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিদেশিদের সামনে দেশকে তুলে ধরার সুযোগ

সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী

আজ ২৭ সেপ্টেম্বর, বিশ্ব পর্যটন দিবস। বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশেও ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০২১’ পালিত হচ্ছে। এবারের বিশ্ব পর্যটন দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধিতে পর্যটন’। এ নিয়ে গতকাল রবিবার সচিবালয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। তিনি বলেন, ‘কভিড-১৯-এর কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত শিল্পগুলোর একটি পর্যটনশিল্প। বাংলাদেশও বৈশ্বিক এই পরিস্থিতির বাইরে নয়। এই মহামারির কারণে দীর্ঘদিন আমাদের পর্যটন স্পট ও এই শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে রাখতে হয়েছিল। এমনকি গত বছর এই সময়ে সংক্রমণের হার বেশি থাকায় বিশ্ব পর্যটন দিবসের সব কর্মসূচি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে আয়োজন করতে হয়েছিল। বর্তমানে দেশে কভিড-১৯-এর সংক্রমণ কমার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পর্যটন স্পটগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে। অভ্যন্তরীণ পর্যটকরা আগ্রহের সঙ্গে বিভিন্ন পর্যটন স্পটে ভ্রমণ করার কারণে আস্তে আস্তে দেশের পর্যটনশিল্পের সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো ঘুরে দাঁড়াচ্ছে, গতি ফিরছে দেশের পর্যটনশিল্পে। তাই এ বছরের বিশ্ব পর্যটন দিবস উদযাপন পর্যটনকে দেশি-বিদেশি পর্যটকের সামনে তুলে ধরা ও তাদের এ সম্পর্কে জানানোর একটি বিশেষ সুযোগ।’

প্রতিমন্ত্রী জানান, বিশ্ব পর্যটন দিবস ২০২১ উপলক্ষে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড ও বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। প্রচারণার জন্য আয়োজিত অনুষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে—আলোচনাসভা, ঘোড়ার গাড়ির শোভাযাত্রা, বাদ্যযন্ত্রসহ ২০টি সুসজ্জিত রিকশার শোভাযাত্রা, দেশের প্রতিটি জেলায় জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে পর্যটন অংশীজনদের নিয়ে আলোচনা, শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা ইত্যাদি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার পর পর্যটন আকর্ষণে দেশে অন-অ্যারাইভাল ভিসা চালুসহ ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করার বিষয়ে আমাদের মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলেছি। এ বিষয়ে আমরা কাজ করছি।’ তিনি আরো বলেন, ‘কভিড-১৯ শুরু হওয়ার আগে আমরা পর্যটন মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য একটি আন্তর্জাতিক সংস্থাকে কার্যাদেশ দিয়েছি। মাস্টারপ্ল্যান শেষ হওয়ার পরই আমরা আমাদের কাজে হাত দেব। কিন্তু করোনার কারণে মাঝখানে কাজ বন্ধ ছিল, বর্তমানে কাজ আবার শুরু হয়েছে এবং ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে মাস্টারপ্ল্যানের কাজ শেষ হবে বলে আশা করি।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. আঃ হান্নান, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাবেদ আহমেদ প্রমুখ।

 



সাতদিনের সেরা