kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

সাক্ষাৎকার

আগামীর চ্যালেঞ্জ ও উদ্ভাবনী কিছুই নেই মুদ্রানীতিতে

ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ, সাবেক গভর্নর, বাংলাদেশ ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩০ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগামীর চ্যালেঞ্জ ও উদ্ভাবনী কিছুই নেই মুদ্রানীতিতে

এবারের মুদ্রানীতিও আগেরটার ধারাবাহিকতায় দেওয়া হয়েছে। এটা বর্তমান বাস্তবতার পরিপ্রেক্ষিতে হয়নি। আগামীতে যে চ্যালেঞ্জগুলো আছে সে বিষয়েও অ্যাড্রেস করা হয়নি। এ ছাড়া ইনোভেটিভ বা উদ্ভাবনীমূলক তেমন কিছুই নেই, যা করোনার এই বিশেষ সময়ে দরকার ছিল। বলা হয়েছে, কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। কিন্তু তার কোনো রূপরেখা নেই। বলা হয়েছে, গতবার বিভিন্ন খাতের ব্যবসায়ীসহ ভেন্ডররা উপকার পেয়েছেন। এবারও তাঁদের উপকার হবে। কিন্তু তাঁরা কোথায় উপকার পেলেন, বুঝলাম না। অনেকটা আত্মপ্রসাদ আর কি। মুদ্রানীতির ফলে অনেকটা দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, কিন্তু বাস্তব অর্থে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে না।

বেসরকারি খাতে ঋণ বাড়বে ১৪ শতাংশের বেশি। কিন্তু এটার আলামত কোথায়? তার মানে এবারও বড় ব্যবসায়ী ও শিল্পোদ্যোক্তারা ঋণ নিয়ে যাবেন। ছোটরা বঞ্চিতই থাকবেন। এ জন্য খাতভিত্তিক ব্যাংকওয়ারি ঋণের টার্গেট বেঁধে দেওয়া দরকার, যা মুদ্রানীতিতে বলা হয়নি।

মুদ্রানীতির সফল বাস্তবায়নে মনিটরিং ও সুপারভিশনের ওপর জোর দিতে হবে। কিন্তু মার্কেটে ব্যাংকগুলোর আচরণ কেমন সেটাও দেখতে হবে। অনেকেই অনিয়ম-দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েছে। খেলাপি ঋণ বেড়েছে। প্রণোদনার ঋণও ঠিকভাবে বিতরণ না করে বসে থাকছে। অথচ বন্ডে বিনিয়োগ করার জন্য ব্যস্ত তারা। এমন আচরণ তো কাঙ্ক্ষিত নয়।