kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

বিজ্ঞান জাদুঘরের সতর্কতা

বছরে দুবার শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের রক্ষণাবেক্ষণ জরুরি

বাণিজ্য ডেস্ক   

২৯ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বছরে দুবার শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের রক্ষণাবেক্ষণ জরুরি

দেশের শিশু-কিশোর ও শিক্ষার্থীসহ নাগরিকদের অগ্নি দুর্ঘটনা সম্পর্কে সচেতন করল জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর। গত মঙ্গলবার বিজ্ঞান জাদুঘর কর্তৃক আয়োজিত ‘বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনা রোধে করণীয়’ শীর্ষক বিজ্ঞান বক্তৃতা অনুষ্ঠানে বক্তারা অগ্নি দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ হিসেবে বৈদ্যুতিক অব্যবস্থাপনাকে চিহ্নিত করেন।

এতে বলা হয়, ভবন নির্মাণে নিম্নমানের বৈদ্যুতিকসামগ্রী তথা নিম্নমানের তার ও প্লাগ ব্যবহার মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ। এ ছাড়া গ্যাসের চুলার অসতর্ক ব্যবহারও দুর্ঘটনার কারণ। অনুষ্ঠানে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কম্পানির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হানিফ উদ্দিন বলেন, “বাসাবাড়িতে দাহ্য পদার্থ খোলা রাখা যাবে না। রান্নার তেলের বোতল মোটা কাপড় বা চট দিয়ে ঢেকে রাখা নিরাপদ। মেইন সুইচ হাতের নাগালে রাখতে হবে। অতি সতর্কতার সঙ্গে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে নতুবা ‘হাত’ দাহ্য পদার্থে পরিণত হবে। দমকল বাহিনী আসার আগে প্রতিটি বাসাবাড়িতে কমপক্ষে ২০ মিনিট অগ্নিনির্বাপণের নিজস্ব ব্যবস্থাপনা থাকতে হবে। পানির বালতি, বালি ও হাতুড়ি প্রস্তুত রাখতে হবে।

সম্প্রতি রূপগঞ্জের জুস কারখানায় সংঘটিত অগ্নিকাণ্ডে হাতুড়ির অভাবে তালাবদ্ধ দরজা খুলতে না পারায় ব্যাপক প্রাণহানি ঘটেছে।” অনুষ্ঠানে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, “দুর্ঘটনা এড়াতে বছরে কমপক্ষে দুবার শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র পরিষ্কার বা রক্ষণাবেক্ষণ করা প্রয়োজন। এ ছাড়া আনাড়ি লোক বাদ দিয়ে দক্ষ ও প্রশিক্ষিত ইলেকট্রিশিয়ান দিয়ে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি পরীক্ষা করাতে হবে। মানসম্মত প্লাগ, তার, ক্যাবল, সুইচ ইত্যাদি যন্ত্রপাতি ক্রয় এবং যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণ দুর্ঘটনামুক্ত থাকার অপরিহার্য শর্ত।”



সাতদিনের সেরা