kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৮। ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৩ সফর ১৪৪৩

পরিকল্পনামন্ত্রী বললেন

উন্নয়ন অর্থবহ করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৭ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উন্নয়ন অর্থবহ করতে হবে

এম এ মান্নান

আমাদের বেসরকারি খাত খুবই শক্তিশালী, আমরা অনেক বেশি এগিয়ে যাওয়ার সক্ষমতা রাখি। তবে কিছু বাধা থাকতে পারে, তা দূর করতে হবে। দেশের উন্নয়নকে অর্থবহ করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। গতকাল সোমবার ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্স অব বাংলাদেশ (আইসিএবি) ‘এলডিসি গ্র্যাজুয়েশন : চ্যালেঞ্জ এবং সুযোগ’ বিষয়ে এক ভার্চুয়াল ওয়েবিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ২০তম অর্থনীতির দেশ, তবে আরো এগিয়ে যেতে সক্ষম। নতুন জেনারেশন আমাদের আরো অনেক সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব কিছু বিকেন্দ্রীকরণ করছেন। সুশাসনের জন্য দেশে বিনিয়োগ অবশ্যই আসবে। সরকার সবার জন্য সমান সুযোগের ক্ষেত্র তৈরি করতে বদ্ধপরিকর।’

স্বল্পোন্নত দেশ হিসেবে যদি বেশি সুবিধা পাওয়া যায় তবে কেন এলডিসি থেকে উত্তরণের জন্য এত কিছু করা হচ্ছে— এমন প্রশ্নের জবাবে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘স্বাধীনতার সুখ অনেক বেশি। স্বাবলম্বী হওয়া অনেক বেশি সম্মানজনক।’

ওয়েবিনারে অন্য বক্তারা বলেন, ফ্যাশন-ডিজাইন ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা; পণ্য উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি ও উৎপাদন ব্যয় হ্রাস করে প্রতিযোগিতা টিকে থাকা; ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ ও বাণিজ্য সহজীকরণ; আইটি অবকাঠামো উন্নত করা; বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং সক্রিয় ফার্মাসিউটিক্যাল (এপিআই) পার্ক স্থাপন দেশকে ২০২৬ সালের মধ্যে স্থায়ীভাবে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।

ওয়েবিনারে শরীফা খান (সদস্যসচিব), শিল্প ও জ্বালানি বিভাগ, পরিকল্পনা কমিশন, বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। আইসিএবি সভাপতি মাহমুদউল হাসান খুসরু এফসিএ স্বাগত বক্তব্য দেন এবং আইসিএবির সদস্য কাউন্সিল ও সাবেক সভাপতি মো. হুমায়ুন কবির এফসিএ অধিবেশন চেয়ারম্যান হিসেবে সভাপতিত্ব করেন। আইসিএবির সিইও ও সাবেক সিনিয়র সচিব শুভাশীষ বসু মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।



সাতদিনের সেরা