kalerkantho

সোমবার । ৫ আশ্বিন ১৪২৮। ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১২ সফর ১৪৪৩

বর্ষার শুরুতেই জমে উঠেছে নাসিরনগর বাজার

দিনে বিক্রি ২৫ লাখ টাকার মাছ

বিশ্বজিৎ পাল বাবু, ব্রাহ্মণবাড়িয়া   

২৪ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দিনে বিক্রি ২৫ লাখ টাকার মাছ

নাসিরনগর বাজারে মাছ বিক্রি করছেন জেলেরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে নাসিরনগর উপজেলা। ১৩টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ২৯৪ বর্গকিলোমিটার এলাকার এই উপজেলার চারপাশে মেঘনা, তিতাস, বলভদ্রা, কাস্তি, বেমালিয়া নদী। রয়েছে বিশাল হাওর। বর্ষার শুরুতেই নাসিরনগরের বাজারে উঠতে শুরু করেছে মিঠা পানির দেশীয় প্রজাতির মাছ। উপজেলা সদরের গাঙকুলপাড়ার মাছে বাজারটি জমে ওঠে। ভোর থেকে শুরু হয়ে এই বাজারের স্থায়িত্ব ঘণ্টা চারেক।

উপজেলার চাতলপাড়, ভলাকুট, কাকরিয়া, ভিটাডুবিসহ হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে হাওরের মিঠা পানির মাছ এখানে আসে। এর মধ্যে রয়েছে বোয়াল, চিংড়ি, কাঁচকি, টেংরা, পুঁটি, মলা, গুলশা, ঢেলা, বাতাসি ইত্যাদি। বর্ষার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়ে বাজারের পরিধি। ভরা বর্ষায় প্রতিদিন এই বাজারে ২৫ থেকে ৩০ লাখ টাকার মাছ বিক্রি হয়। গত শনিবার সকালে বাজারে মাছ নিয়ে আসা নিরঞ্জন দাস জানান, তিনি হাওরে রাতভর জাল দিয়ে মাছ শিকার করেন। ভোরের আলো ফোটার আগেই মাছ নিয়ে ছুটে আসেন গাঙকুলপাড়ার এই বাজারে। মত্স্যজীবী রাখেশ দাস জানান, হাওরে এখনো পর্যাপ্ত পানি আসেনি। বর্ষার শুরুতে মাছের সরবরাহ বাজারে অনেকটাই কম। পানি বাড়লে মাছের সরবরাহ আরো বাড়বে। জেলার সরাইল থেকে আসা পাইকার আব্দুল কাদের জানান, তিনি এই বাজার থেকে নিয়মিত দেশীয় মাছ কিনে থাকেন। তবে বাজারে মাছের সরবরাহ কম হওয়ায় দাম অনেকটা বেশি।

হবিগঞ্জের মাধবপুর থেকে আসা পাইকার নূরুল হক জানান, তিনি প্রতিদিন এই বাজার থেকে দেশীয় মাছ কিনে মাধবপুরের বিভিন্ন বাজারে বিক্রি করেন। তবে বাজারে মাছ কম ওঠায় বেশি দামেই কিনতে হচ্ছে বলে জানান তিনি।

বাজার সম্পর্কে স্থানীয় দিবর মত্স্য সমবায় সমিতির সদস্য বিনোদ দাস জানান, একসময় বাজারটির ইজারা ছিল। এতে বাজারে আসা ক্রেতা-বিক্রেতারা হয়রানির শিকারের পাশাপাশি আর্থিকভাবে লোকসানে পড়ত। কিন্তু বর্তমান সংসদ সদস্য বাজারটিকে ইজারামুক্ত করে দেন। এতে বাজারে আসা ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়েই লাভবান হচ্ছে। বাজার কমিটির সভাপতি সুশীল দাস জানান, বর্ষা মৌসুম ছাড়াও পুরো বছরই বাজারটি জমজমাট থাকে।