kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

ঈদে ওয়ালটনের ফ্রিজ বিক্রি আশাতীত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈদের প্রত্যাশার চেয়ে বেশি ফ্রিজ বিক্রি করেছে দেশি ব্র্যান্ড ওয়ালটন। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, ঈদের আগ মুহূর্তে ওয়ালটন ফ্রিজ বিক্রির ধুম পড়েছিল। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার মাধ্যমে ওয়ালটন শোরুম বিক্রয় প্রতিনিধিরা ক্রেতাদের হাতে তুলে দিয়েছেন পছন্দের ফ্রিজ। আবার করোনা পরিস্থিতিতে ক্রেতারা ঘরে বসে ফোন করলেই কাছাকাছি প্লাজা অথবা ডিস্ট্রিবিউটর শোরুম থেকে ক্যাশ অন ডেলিভারি সুবিধায় ওয়ালটন ফ্রিজ ফ্রি হোম ডেলিভারি দেওয়া হয়েছে।

ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী গোলাম মুর্শেদ বলেন, ‘করোনাকালে দেশের মানুষের হাতে সাশ্রয়ী দামে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির পণ্য তুলে দেওয়া ওয়ালটনের দায়িত্ব। ব্যাপক গবেষণার মাধ্যমে ওয়ালটন পণ্যে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন সব প্রযুক্তি ও সর্বাধুনিক ফিচার যুক্ত করা হচ্ছে। তাই ওয়ালটন ব্র্যান্ডের প্রতি আস্থা রাখছেন ক্রেতারা।

ওয়ালটন ফ্রিজের সিইও প্রকৌশলী আনিসুর রহমান মল্লিক জানান, স্থানীয় বাজারে এ বছর অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচারের সর্বোচ্চ সংখ্যক মডেলের ফ্রিজ ছাড়ায় বিক্রিও হচ্ছে আশাতীত। এরই মধ্যে জানুয়ারি থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত ওয়ালটন ফ্রিজ বিক্রি হয়েছে আট লাখেরও বেশি। ঈদ উপলক্ষে ওয়ালটন এনেছে আইওটি (ইন্টারনেট অব থিংকস) বেজড সাইড বাই সাইড ডোরের নতুন মডেলের স্মার্ট ফ্রিজ। বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে বসে মুঠোফোনে এই স্মার্ট ফ্রিজ নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। ওয়ালটনের সাইড বাই সাইড ডোর মডেলের স্মার্ট ফ্রিজ ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার প্রযুক্তির। ফলে ফ্রিজে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয় ৬০ শতাংশ পর্যন্ত।

ওয়ালটন ফ্রিজের প্রডাক্ট ম্যানেজার শহীদুল রেজা জানান, করোনা মহামারি, লকডাউন ও রোজার ঈদ—সার্বিক পরিস্থিতিতে ফ্রিজের গ্রাহক চাহিদা বেশ ভালো। বৈচিত্র্যময় ডিজাইন ও মডেল, সহজ কিস্তি সুবিধা, এক বছরের রিপ্লেসমেন্টসহ কম্প্রেসরে ১২ বছরের গ্যারান্টি সুবিধার ক্ষেত্রে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের প্রতিই আস্থা রাখছেন গ্রাহকরা।