kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

পর্যটনকেন্দ্রে দর্শনার্থীর ভিড়ে উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

বাণিজ্য ডেস্ক   

১৭ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পর্যটনকেন্দ্রে দর্শনার্থীর ভিড়ে উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সারা দেশে চলছে কঠোরভাবে বিধি-নিষেধ বা লকডাউন। সরকারি-বেসরকারি অফিসে কর্মরত সবাইকে ঈদের ছুটিতেও নিজ নিজ কর্মস্থলে থাকতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে জনসমাগম ঘটাতে নিরুৎসাহিত করাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছে সরকার। এর মধ্যেও দেশের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে ভিড় করছে অসংখ্য মানুষ। অনেকে স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা করছে না।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) : সারা দেশের পর্যটনকেন্দ্রের মতো মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, মাধবপুর লেক ও বীরশ্রেষ্ঠ সিপাহি হামিদুর রহমান স্মৃতিসৌধে পর্যটকের প্রবেশ ও চলাফেরা নিষেধাজ্ঞা ছিল। লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান প্রবেশ ফটক বন্ধ থাকায় ভেতরে প্রবেশ করতে না পারলেও বৃষ্টি উপেক্ষা করে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের ভেতরের কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়কধারে আর মাধবপুর চা বাগানের লেকসহ বিভিন্ন চা বাগানের লেক ও চা প্লান্টেশন এলাকায় পর্যটকদের উপচেপড়া ভিড় ছিল।

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) : ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে হাজার হাজার মানুষ পরিবারের সঙ্গে ঈদ কাটাতে পাবনার ভাঙ্গুড়ায় এসেছে। বহিরাগত এসব মানুষ স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করেই ঈদের দিন থেকে তিন দিন ধরে চলনবিলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে ভাঙ্গুড়া-নওগাঁ সড়কে জড়ো হচ্ছে। এতে প্রতিদিন দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এই সড়কের পাঁচ কিলোমিটার জনবসতি বিচ্ছিন্ন এলাকাজুড়ে অন্তত ২০ হাজার মানুষের সমাগম ঘটে।

বানারীপাড়া (বরিশাল) : ঈদ উপলক্ষে বরিশালের উজিরপুর উপজেলার গুঠিয়া মসজিদ ও ঈদগাহ কমপ্লেক্স দর্শনার্থীদের মিলনমেলায় পরিণত হয়। ঈদের দিন শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বরিশাল শহর, বাকেরগঞ্জ, গৌরনদী, বাবুগঞ্জ, ঝালকাঠি, নলছিটি, বানারীপাড়া, উজিরপুর ও পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিসহ বিভিন্ন এলাকার শিশু ও বৃদ্ধসহ নানা বয়সের কয়েক হাজার নারী-পুরুষ দৃষ্টিনন্দন এই মসজিদ ও ঈদগাহ কমপ্লেক্স দেখতে আসে।

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় সারা দেশের মতো মৌলভীবাজারের বড়লেখায় দেশের অন্যতম জলপ্রপাত মাধবকুণ্ড বন্ধ ঘোষণা করা হয়। গত ১ এপ্রিল বন বিভাগ এই নির্দেশনা জারি করে। তবে ঈদুল ফিতরের ছুটিতে সেখানে ভিড় করছে পর্যটকরা। তবে প্রশাসন তাদের গেট থেকে ফিরিয়ে দিচ্ছে।

রাঙামাটি : সাধারণত ঈদের পরদিন হাজারো মানুষের পদভারে মুখর থাকে যে পর্যটন কমপ্লেক্স, সেখানেই যেন আজ কবরের নীরবতা। গত শনিবার ঈদের পরদিন দুপুরে সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেল, কোথাও কেউ নেই। বন্ধ বিশাল পর্যটন মোটেল, প্রধান গেটেই বড় তালা ঝুলছে। ঝুলন্ত সেতুতে প্রবেশের টিকিট কাউন্টারটিও বন্ধ, ঝুলছে নোটিশ। শুধু ছোট গেটটি খোলা আছে, গেটের ভেতর দিয়ে প্রবেশ করে ওপারের স্থানীয় এলাকাবাসীর বসত ঘরে যেতে হয় বলে।