kalerkantho

সোমবার । ৭ আষাঢ় ১৪২৮। ২১ জুন ২০২১। ৯ জিলকদ ১৪৪২

করোনাকালে ময়মনসিংহে নারী উদ্যোক্তাদের সরব উপস্থিতি

নিয়ামুল কবীর সজল, ময়মনসিংহ   

১১ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনাকালে ময়মনসিংহে নারী উদ্যোক্তাদের সরব উপস্থিতি

উদ্যোক্তা নাজনীন জামান

বছরখানেক আগেও ময়মনসিংহ নগরীতে নারী উদ্যোক্তা বলতে হাতে গোনা কয়েকজনের নামই শোনা যেত। উল্লেখযোগ্য নারী উদ্যোক্তা হিসেবে তখনকার সংখ্যাটা শ-খানেকের কাছাকাছি হবে। বর্তমানে এ সংখ্যা হাজারেরও ওপর। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এখন নারী উদ্যোক্তাদের সরব উপস্থিতি। খাবার থেকে শুরু করে দা, বঁটি পর্যন্ত বিক্রিতে যুক্ত আছেন নারীরা। এসব নারীর কেউ ছিলেন গৃহিণী। কেউবা ছিলেন অন্য পেশায়। কেউ ছিলেন শিক্ষিত বেকার। এখন সবাই উদ্যোক্তা। একে অন্যের পাশেও দাঁড়াচ্ছেন অনেক উদ্যোক্তা। করোনা দুঃসময়ে নারী উদ্যোক্তাদের এমন শ্রম আর ইচ্ছা শক্তিকে স্বাগত জানিয়েছেন বিভিন্ন মহল।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে, মূলত জামা কাপড়, শাড়ি, পাঞ্জাবি, ব্লক-বাটিকের কাজ এসব নিয়েই বেশির ভাগ নারী উদ্যোক্তাদের বিচরণ ছিল। করোনাকালে সবচেয়ে বেশি উদ্যোক্তা সৃষ্টি হয় খাদ্যপণ্যের ক্ষেত্রে। হরেক রকম খাবার পণ্য নিয়ে নারী উদ্যোক্তারা হাজির। বিশেষ করে হোটেল বন্ধ থাকায় অনেকেই এসব নারী উদ্যোক্তাদের খাবারের দিকে নজর দেন। উদ্যোক্তারাও আন্তরিকতার সঙ্গে গুণ মান বজায় রেখে খাদ্যপণ্য তৈরি করে ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দেওয়া শুরু করেন। এসব পর্যায়ে নারী উদ্যোক্তারা যুক্ত হন বিভিন্ন সংগঠনে। ময়মনসিংহ উইমেন চেম্বারও এগিয়ে আসে নারী উদ্যোক্তাদের পাশে। এগিয়ে আসে আরো কিছু সংগঠন। সরকারি বেসরকারিভাবে অনেক উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণেরও সুযোগ পান। সব মিলিয়ে মাত্র এক বছরের মাঝেই নারী উদ্যোক্তাদের এক শক্তিশালী অবস্থান তৈরি হয়েছে ময়মনসিংহ নগরীতে।