kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

করোনায় সরকারের সুদৃষ্টি চায় বিনোদন ও পর্যটন খাত

বাণিজ্য ডেস্ক   

১০ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় সরকারের সুদৃষ্টি চায় বিনোদন ও পর্যটন খাত

করোনার শুরু থেকেই অন্যান্য শিল্প ও ব্যাবসায়িক খাত বন্ধ থাকলেও বিভিন্ন খাতে দেওয়া হয়েছে সরকারি প্রণোদনা। কিন্তু ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে অবহেলিত হয়ে আছে বিনোদন ও পর্যটন খাত। গত বছরের শেষ দিকে করোনার প্রকোপ কিছুটা কমলে ব্যাবসায়িক ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে অনেক বিনোদন ও পর্যটন শিল্পপ্রতিষ্ঠান বিশেষ করে পার্ক ও বিনোদন কেন্দ্রগুলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে খুলে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু করোনার দ্বিতীয় ধাপে ফের বিনোদন পার্ক ও পর্যটনকেন্দ্রগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়। বিনোদন পার্ক ও পর্যটনকেন্দ্রগুলোর ব্যাবসায়িক মৌসুম হলো ঈদ। অন্যান্য ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মতো এখনো যদি বিনোদন পার্কগুলো খুলে না দেওয়া হয়, তাহলে এই প্রতিষ্ঠানগুলোর টিকে থাকা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়বে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড। সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বিনোদন ও পর্যটন খাতে প্রচুর বিনিয়োগ এবং ব্যাংকঋণ রয়েছে। লকডাউনে এই সেক্টর দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় যে ধস নেমেছে তাতে প্রতিষ্ঠানের মালিকদের বড় একটি অংশের ঋণখেলাপি হওয়ার আশঙ্কা তীব্রতর হচ্ছে। অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারী চাকরিচ্যুত হবে। পাশাপাশি এর সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত লাখ লাখ পরিবারের জীবন জীবিকা নির্বাহ করা দিন দিন দুরূহ হয়ে পড়বে। গত বছর লকডাউনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত সেক্টরগুলোর জন্য সরকারঘোষিত প্রণোদনা দেওয়া হলেও পর্যটনশিল্প তথা বিনোদন পার্কগুলোকে সরকারঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় আনা হয়নি। এ অবস্থায় আসন্ন ঈদের আগে অন্যান্য সেক্টর/প্রতিষ্ঠানের মতো বিনোদন পার্কগুলো খুলে দেওয়ার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড। সেই সঙ্গে সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষিত হলে বিনোদন শিল্পকে প্রণোদনা প্যাকেজের আওতাভুক্ত করারও অনুরোধ করা হয়।



সাতদিনের সেরা