kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

কর্মশালায় বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান

ব্যবসা সহজীকরণ সূচকে ৬৮ ধাপ এগোনোর আশা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশের ব্যবসা সহজীকরণে ১০টি সূচকের সবটি সঠিকভাবে পূরণ করতে পারলে বাংলাদেশের অবস্থান হবে বৈশ্বিক তালিকার ১০০-এর মধ্যে। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম এ কথা বলেছেন।

গতকাল বুধবার রাজধানীর নিউ ইস্কাটনের বিয়াম ফাউন্ডেশনে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) আয়োজিত ব্যবসা সহজীকরণ সূচক বিষয়ে এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সর্বশেষ বিশ্বব্যাংক রিপোর্টে বাংলাদেশের অবস্থান ১৬৮তম।

কর্মশালায় তিনটি বৈশ্বিক ইন্ডিকেটরের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান তুলে ধরা হয়। এগুলোর মধ্যে স্টারটিং এ বিজনেস, ডিলিং উইথ কন্সট্রাকশন পারমিটস এবং রেজিস্ট্রেশন প্রপার্টি। স্টারটিং বিজনেসে বর্তমান র্যাংকিং ১৩১ ও স্কোর ৮২.৪, ডিলিং উইথ কন্সট্রাকশন পারমিটস র্যাংকিং ১৩৫ ও স্কোর ৬১.১ এবং রেজিস্ট্রেশন প্রপার্টির র্যাংকিং ১৮৪ ও স্কোর ২৯।

সিরাজুল ইসলাম বলেন, বিদেশি কম্পানি ঠিক তখনই এ দেশে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী হবে, যখন বিশ্বব্যাংকের রিপোর্টে ব্যবসা সহজীকরণে বাংলাদেশের সূচক আরো উন্নতি হবে। সর্বশেষ বিশ্বব্যাংক রিপোর্টে বাংলাদেশের অবস্থান ১৯০টি দেশের মধ্যে ১৬৮তম হলেও তা আশাব্যঞ্জক নয়। তাই দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য সহজীকরণের জন্য নানা ধরনের সংস্কার কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। আর এ লক্ষ্যেই কাজ করে চলছে বিডা।

সূচকগুলোয় অগ্রগতির প্রতিবেদন তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘ব্যবসা সহজীকরণ সূচকগুলোয় উন্নতি করতে হলে দাতা গ্রহীতাসহ সেক্টরগুলোকে সমঝোতার ভিত্তিতে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। উন্নত বাংলাদেশ গড়তে হলে আমাদের দরকার অনেক দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ, আর পর্যাপ্ত বিনিয়োগ ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়, তাই আমাদের উন্নত বাংলাদেশ গড়তে ইজ অফ ডুয়িং বিজিনেস সূচক উন্নয়নের বিকল্প নেই।’

২০২১ সালের এপ্রিলে বিশ্বব্যাংকের ব্যবসা সহজীকরণে রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে বলে তিনি জানান।

কর্মশালায় বিডার মহাপরিচালক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম স্বাগত বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, চেম্বারস অব কমার্স, আইএফসি, রিহ্যাব এবং সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা