kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৩ রজব ১৪৪২

যুক্তরাষ্ট্রে বাড়ি বিক্রি ১৪ বছরে সর্বোচ্চ

করোনা মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্রে গত বছর মর্টগেজ বা বন্ধকি ঋণে সুদের হার ছিল রেকর্ড সর্বনিম্ন

বাণিজ্য ডেস্ক   

২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যুক্তরাষ্ট্রে বাড়ি বিক্রি ১৪ বছরে সর্বোচ্চ

সুদের হার কমায় যুক্তরাষ্ট্রে করোনা মহামারিতেও আবাসন ব্যবসা চাঙ্গা। গত বছর দেশটিতে রেকর্ডসংখ্যক বাড়ি বিক্রি হয়েছে, যা ১৪ বছরে সর্বোচ্চ। সম্প্রতি প্রকাশিত জরিপে দেখা যায়, দেশটিতে ২০২০ সালে বিদ্যমান বাড়ি বিক্রি বেড়ে ২০০৬ সালের পর সর্বোচ্চ হয়েছে।

ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব রিয়েলটরস (এনএআর) জানায়, যুক্তরাষ্ট্রে ২০২০ সালে বাড়ি বিক্রি হয় মোট ৫৬ লাখ ৪০ হাজার, যা ২০১৯ সালের চেয়ে ৫.৬ শতাংশ বেশি। এমনকি গত ডিসেম্বরে দেশটিতে বাড়ি বিক্রি নভেম্বরের চেয়ে বেড়েছে ০.৭ শতাংশ এবং এক বছর আগের একই সময়ের চেয়ে বেড়েছে ২২.২ শতাংশ।

উচ্চ চাহিদা ও সীমিত সরবরাহের কারণে একপর্যায়ে বাড়ির দাম বেড়ে গেলেও বিক্রয় অব্যাহতভাবে বেড়েছে। জরিপে বলা হয়, করোনা মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্রে গত বছর মর্টগেজ বা বন্ধকি ঋণে সুদের হার ছিল রেকর্ড সর্বনিম্ন। মহামারিতে মানুষের দৈনন্দিন জীবনের কর্মকাণ্ড ব্যাহত হলেও এ সময়ে যাদের সামর্থ্য ছিল তারা বাড়ি কিনে রেখেছে।

এনএআরের প্রধান অর্থনীতিবিদ লরেন্স ইউন বলেন, ‘গত ডিসেম্বরে এবং ২০২০ সালের পুরো বছরেই বাড়ি বিক্রি বেড়েছে। আমরা দেখতে পেলাম করোনার মধ্যেও আবাসন খাতে পারফরম্যান্স ২০০৬ সালের পর সর্বোচ্চ। এ গতি আমাদের নতুন বছরেও ধরে রাখতে হবে। কারণ আরো অনেক ক্রেতা এ বছর বাজারে প্রবেশ করবে।’

এদিকে বিদ্যমান ও নতুন বাড়ি বিক্রি ব্যাপকভাবে বাড়ায় আবাসনসংশ্লিষ্ট কম্পানিগুলো সরবরাহ ঠিক রাখতে হিমশিম খাচ্ছে। চাহিদা বাড়ায় ঊর্ধ্বমুখী বাড়ির দাম। গত ডিসেম্বরে ২০১৯ সালের একই সময়ের চেয়ে দাম বেড়েছে ১২.৯ শতাংশ। এ বিষয়ে সতর্ক করে দিয়ে মর্টগেজ ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের জোয়েল ক্যান বলেন, ‘বাড়ির দাম এভাবে বেড়ে গেলে ভবিষ্যতে আবারও বিক্রি কমে যাবে। বিশেষ করে যারা প্রথমবারের মতো বাড়ি কিনছে তাদের জন্য এটি চ্যালেঞ্জিং হয়ে যাবে। অথচ এরাই এক-তৃতীয়াংশ বাড়ির ক্রেতা।’ সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা