kalerkantho

শনিবার । ৯ মাঘ ১৪২৭। ২৩ জানুয়ারি ২০২১। ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

৮০ হাজার টন ইউরিয়া সার কিনবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



৮০ হাজার টন ইউরিয়া সার কিনবে সরকার

রাষ্ট্রীয় চুক্তির আওতায় ৮০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার কিনবে সরকার। এর মধ্যে সৌদি আরব ও কাতার থেকে কেনা হবে ৫০ হাজার মেট্রিক টন। আর বাকি ৩০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার কেনা হবে কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কম্পানি লিমিটেডের (কাফকো) কাছ থেকে। এতে ব্যয় হবে ১৭৪ কোটি ৮৬ লাখ ৯৫ হাজার ৭৪৯ টাকা। গতকাল বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকে এসংক্রান্ত একটি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। এটিসহ তিন হাজার ৮৩২ কোটি ২৬ লাখ টাকার আট ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। কমিটির চেয়ারম্যান অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের অনুপস্থিতিতে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক সভায় সভাপতিত্ব করেন। বৈঠক শেষে অনুমোদিত ক্রয় প্রস্তাবগুলোর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. আবু সালেহ মোস্তফা কামাল।

অতিরিক্ত সচিব ড. আবু সালেহ মোস্তফা কামাল জানান, ২০২০-২১ অর্থবছরে কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কম্পানি লিমিটেড (কাফকো) থেকে চুক্তি অনুযায়ী ছয় লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সারের মধ্যে অষ্টম লটে ৩০ হাজার মেট্রিক টন ব্যাগড গ্র্যানুলার সার আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৬৩ কোটি ৫৮ লাখ টাকা।

তিনি বলেন, চলতি অর্থবছরে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির মাধ্যমে সৌদি আরবের সাবিক থেকে অষ্টম লটে ২৫ হাজার মেট্রিক টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ৫৫ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। এ ছাড়া কাতার কেমিক্যাল অ্যান্ড পেট্রোকেমিক্যাল মার্কেটিং অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কম্পানি (মুনতাজাত) থেকে ষষ্ঠ লটে ২৫ হাজার মেট্রিক টন বাল্ক প্রিল্ড ইউরিয়া সার আমদানির আরেকটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৫৫ কোটি ৫৮ লাখ টাকা।

অতিরিক্ত সচিব জানান, ২০২১ সালের জানুয়ারি-জুনের মধ্যে আন্তর্জাতিক কোটেশন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে গ্যাস ওয়েল (ডিজেল) জেট এ-১, ফার্নেস অয়েল, মোগ্যাস (অকটেন) ও মেরিন ফুয়েল আমদানি করা হবে। এতে ব্যয় হবে তিন হাজার ৫৮৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

বৈঠকে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘শতভাগ পল্লী বিদ্যুতায়নের জন্য বিতরণ নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ (রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগ) (প্রথম সংশোধিত)’ শীর্ষক প্রকল্পের একটি প্যাকেজের লট-১-এর আওতায় কন্ডাক্টর, এসিএসআর, বেয়ার কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৬৯ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। একই প্রকল্পের জন্য কন্ডাক্টর, ইনস্যুলটেড ৬০০ ভোল্টের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ৪৬ কোটি ১১ লাখ টাকা। এ ছাড়া ২০২১ শিক্ষাবর্ষের মাধ্যমিক (বাংলা ও ইংরেজি ভার্সন) এবং ইবতেদায়ি ও দাখিল স্তরের জন্য কাগজসহ চার লাখ ৬৫ হাজার ৫৩৫ কপি বিনা মূল্যের পাঠ্যবই মুদ্রণ, বাঁধাই ও সরবরাহের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ৫১ লাখ পাঁচ হাজার টাকা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা