kalerkantho

সোমবার । ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৩ নভেম্বর ২০২০। ৭ রবিউস সানি ১৪৪২

অনলাইনে আরো ১১ সেবা চালু করল বেজা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অনলাইনে আরো ১১ সেবা চালু করল বেজা

সোনারগাঁও হোটেলে গতকাল ১১টি পরিষেবা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস। ছবি : কালের কণ্ঠ

বিনিয়োগকারীদের শিল্প-কারখানা স্থাপন সহজ করতে ওয়ানস্টপ সার্ভিসের (ওএসএস) আওতায় নতুন করে আরো ১১টি পরিষেবা চালু করেছে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)। এর মাধ্যমে দেশি ও বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে গিয়ে যে হয়রানি হতে হতো, সেখান থেকে কিছুটা মুক্তি মিলবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আনুষ্ঠানিকভাবে এই ১১টি পরিষেবা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস। ১১টি সেবার মধ্যে ৯টিই হলো পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে। এর আগে বেজার ওয়ানস্টপ সার্ভিস থেকে ২১ সেবা চালু রয়েছে। সব মিলিয়ে এখন অনলাইন সেবা গিয়ে দাঁড়াল ৩২-এ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বেজার অনলাইনে পরিবেশ অধিদপ্তরের যে ৯টি সেবা দেওয়া হবে, এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো পরিবেশগত প্রভাব মূল্যায়নের (ইআইআইএ) আবেদন, লাল, সবুজ ও কমলা এই তিন ক্যাটাগরির পরিবেশ ছাড়পত্র এবং এই তিন ক্যাটাগরিতে পরিবেশ ছাড়পত্র নবায়ন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. আহমদ কায়কাউস বলেন, আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ জাতি হিসেবে গড়ে তুলতে বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। এই কারণে মাথাপিছু আয় ১২ হাজার ডলার উন্নীত করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে বিশ্বব্যাংকের ব্যবসা সহজীকরণ সূচকে উন্নতি করতে সরকার কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে ভূমিসচিব মাকসুদুর রহমান পাটোয়ারী বলেন, ভূমি মন্ত্রণালয় বেজাকে শিল্প-কারখানা স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় জমি দিয়ে সহযোগিতা করে আসছে। শিল্প-কারখানা স্থাপনে আগামী দিনেও যত জমির প্রয়োজন হবে, তা দেওয়া হবে।

পরিবেশসচিব জিয়াউল হাসান বলেন, নতুন করে চালু হওয়া ১১টি সেবার মধ্যে ৯টিই পরিবেশ অধিদপ্তরবিষয়ক। তিনি আশা প্রকাশ করেন, বিনিয়োগকারীরা এখন থেকে আরো দ্রুত পরিবেশবিষয়ক সেবা পাবেন। অবশ্য শিল্পায়নের সঙ্গে শিল্প-কারখানার আশপাশে উন্মুক্ত স্থানে সবুজায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করার তাগিদ দেন তিনি।

বিজিএমইএর সভাপতি ড. রুবানা হক বলেন, ‘বিজিএমইএ ও বেজা বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে একটি গার্মেন্ট পার্ক প্রতিষ্ঠায় যৌথভাবে কাজ করছে। আমি আশা করি, বিজিএমইএসহ অন্য বিনিয়োগকরীরা বেজার ওএসএস সেন্টার থেকে সব সেবা নির্ধারিত সময়ে নিয়ে দ্রুত ব্যবসা পরিচালনা করতে সক্ষম হবেন।’

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেন, বেজার ওয়ানস্টপ সার্ভিস শুধু কাগজে-কলমে নয়, বাস্তবিক অর্থেই বিনিয়োগকারীদের ওয়ানস্টপ সার্ভিস নিশ্চিত করছে এবং আগামী দিনে এর ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে। তিনি আরো বলেন, করোনাকালেও বেজার ওএসএস সেন্টা থেকে সব ধরনের সেবা অব্যাহত ছিল; যার কারণে নতুন নতুন বিনিয়োগ প্রস্তাব পাওয়া গেছে।

গতকালের অনুষ্ঠানে সিঙ্গাপুরভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ইন্টার এশিয়া গ্রুপ প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে জমি বরাদ্দে চুক্তি হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি মূলত হোটেল-মোটেল, পর্যটন, লাইফ স্টাইল ও অবকাঠামো উন্নয়নের সঙ্গে জড়িত। প্রস্তাবনা অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠানটি সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে ৯ কোটি ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, জাদুঘর, বিনোদন পার্ক, হোটেল ও রিসোর্ট নির্মাণ করবে। উল্লেখ্য, বেজার ওএসএস সেন্টার থেকে এরই মধ্যে ৫৬টি প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ৬৬৯টি ভিসা সুপারিশ, ১৮১ ওয়ার্ক পারমিট, এক হাজার ৪১১ রপ্তানি অনুমোদন, সাত হাজার ২০২টি আমদানি অনুমোদন এবং ৪৩টি ট্রেড লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য