kalerkantho

সোমবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩০ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

ভোক্তাঋণ বাড়াতে প্রভিশনে ছাড়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভোক্তাঋণ বাড়াতে প্রভিশনে ছাড়

ক্রেডিট কার্ডের পর এবার অন্য সব ভোক্তা খাতের অশ্রেণীকৃত (নিয়মিত) ঋণের বিপরীতে প্রভিশন সংরক্ষণে ব্যাংকগুলোকে ছাড় দিল বাংলাদেশ ব্যাংক। এত দিন অশ্রেণীকৃত ভোক্তাঋণের বিপরীতে ৫ শতাংশ প্রভিশন সংরক্ষণ করতে হলেও এখন করতে হবে মাত্র ২ শতাংশ। এর ফলে ৩ শতাংশ ব্যয় কমবে ব্যাংকগুলোর। গতকাল মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এসংক্রান্ত সার্কুলার জারি করা হয়েছে। মূলত ভোক্তা খাতে ব্যাংকগুলোর ঋণ বিতরণ উৎসাহিত ও বাজারে চাহিদা সৃষ্টি করতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা।

এই বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আগে ভোক্তাঋণের সুদহার ছিল ১৪ থেকে ১৬ শতাংশ পর্যন্ত। ক্রেডিট কার্ডে ছিল আরো বেশি, প্রায় ২৭ শতাংশ পর্যন্ত। ১ এপ্রিল থেকে ক্রেডিট কার্ড ছাড়া অন্য সব ভোক্তাঋণের সুদহার ৯ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়েছে। কিন্তু এখানে ব্যাংকের খরচ আগের মতোই রয়েছে। এ বিবেচনায় ব্যাংকের খরচ কমাতে ভোক্তা খাতের নিয়মিত ঋণের প্রভিশন সংরক্ষণ ৫ শতাংশ থেকে ২ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়েছে। এতে ব্যাংকের খরচ ৩ শতাংশ কমে গেল। এর ফলে এসএমই খাতের ব্যবসা সম্প্রসারণ হবে। কারণ ভোক্তাঋণের আওতায় এসএমই পণ্যই বেশি কেনা হয়ে থাকে। মানুষ কেনাকাটা করলে এসএমই পণ্য বাড়বে।’

এর আগে ২০১৭ সালের আগস্টে নিয়মিত ক্রেডিট কার্ড গ্রাহকের ঋণের বিপরীতে প্রভিশন সংরক্ষণের হার ৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২ শতাংশ করা হয়েছিল। সম্প্রতি ক্রেডিট কার্ডের সুদহার ২০ শতাংশ নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা