kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২২ শ্রাবণ ১৪২৭। ৬ আগস্ট  ২০২০। ১৫ জিলহজ ১৪৪১

উন্নতির পথে পুঁজিবাজার

বড় চমকে বাড়ছে আস্থা

রফিকুল ইসলাম   

৩১ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বড় চমকে বাড়ছে আস্থা

অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সুশাসন নিশ্চিতকে অগ্রাধিকার দিয়ে পুঁজিবাজার উন্নয়নে কাজ শুরু করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা। ভালো ভালো কম্পানি আইপিও দেওয়ার ক্ষেত্রেও অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে, যাতে বিনিয়োগকারীর আস্থা বাড়িয়ে তুলছে বলে মনে করছে কমিশন।

নিয়ন্ত্রক সংস্থার চেয়ারম্যান ড. শিবলী রুবাইয়াত-উল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সুশাসন নিশ্চিত ও বিনিয়োগকারীর স্বার্থরক্ষায় কঠোর অবস্থান নেবে কমিশন। কোনো অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যার প্রতিফলন পুঁজিবাজারে দেখা যাচ্ছে। বিনিয়োগকারীর আস্থা ক্রমে বাড়ছে। আগামী দিনগুলোতেও বাজার আরো সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।’

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের তথ্যানুযায়ী, এক সপ্তাহ ধরে পুঁজিবাজার ঊর্ধ্বমুখী ধারায়। ঈদের আগে পাঁচ কার্যদিবস লেনদেনে প্রতিদিনই শেয়ার কেনার চাপ থাকায় সূচক বেড়েছে। বেড়েছে বিনিয়োগকারীর অংশগ্রহণ। সাধারণত কোরবানি ঈদের আগে পুঁজিবাজার থেকে টাকা তোলার চাপ থাকলেও এবার নতুন নতুন বিনিয়োগ ঢুকছে বলে জানায় কমিশন।

গতকাল বৃহস্পতিবার পুঁজিবাজারে বড় উত্থান হয়েছে। লেনদেন ৫০০ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হয়েছে ৫৮০ কোটি ৯০ লাখ টাকা, যা গত চার মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন। চলতি বছরের ১১ মার্চ গতকালের চেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছিল। তবে এই সময়ের পর থেকে শেয়ার বিক্রির চাপে লেনদেন ও সূচক কমেছে।

পুঁজিবাজারে বড় উত্থানের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সম্প্রসারণমূলক মুদ্রানীতির ভূমিকার কথা বলছেন সংশ্লিষ্টরা। তাঁরা বলছেন, করোনাকালে টাকার প্রবাহ বাড়াতে সম্প্রসারণমূলক মুদ্রানীতি ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। টাকার প্রবাহ বাড়াতে রেপো ও ব্যাংক রেট কমানো হয়েছে, যাতে টাকার প্রবাহ বাড়বে। আর এই প্রবাহ বাড়লে পুঁজিবাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।

গত বুধবার পুঁজিবাজারে অনিয়মকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর বার্তা দিয়েছে কমিশন। আইন লঙ্ঘন করা প্রতিষ্ঠানগুলোকে জরিমানা করা হয়েছে। আর সমন্বিত হিসাবে ঘাটতি ও নিজ প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের মার্জিন ঋণ ও নগদ হিসাবে মার্জিন ঋণ দিয়ে আইন লঙ্ঘন করায় কয়েকটি ব্রোকারেজ হাউসকে সতর্ক করা হয়েছে। এদিকে কম্পানির পরিচালকদের ২ শতাংশ করে শেয়ার ধারণ ও সম্মিলিতভাবে কম্পানির উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণে চিঠি পাঠানো হয়েছে। ৪৫ দিনের মধ্যে এই শর্ত পূরণ না করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে কমিশন।

মন্তব্য