kalerkantho

শনিবার । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৫ আগস্ট ২০২০ । ২৪ জিলহজ ১৪৪১

চীনের ৫০ বিনিয়োগ প্রস্তাব পুনর্বিবেচনা করছে ভারত

বাণিজ্য ডেস্ক   

৮ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চীনের ৫০ বিনিয়োগ প্রস্তাব পুনর্বিবেচনা করছে ভারত

ভারত সরকার চীনা কম্পানিগুলোর দেওয়া প্রায় ৫০টি বিনিয়োগ প্রস্তাব পুনর্বিবেচনা করছে। বিষয়টির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট তিনটি সূত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানায়, নতুন করা নীতির আলোকে এ বিনিয়োগ প্রস্তাবগুলো পুনর্বিবেচনা হচ্ছে। গত এপ্রিলে ভারত সরকার নতুন এ নীতি ঘোষণা করে।

নতুন নীতি অনুযায়ী প্রতিবেশী দেশগুলোর যেসব প্রতিষ্ঠান বিনিয়োগ করবে, সেগুলোর ভারত সরকার কর্তৃক অনুমোদিত হতে হবে। তারা নতুন বিনিয়োগ করুক কিংবা আগের বিনিয়োগ নতুন করে অর্থায়ন করুক, প্রতিবেশী বিনিয়োগকারীর প্রায় সবই চীনের। তাই চীনা বিনিয়োগকারীরা নতুন এ নীতির সমালোচনা করেছে। তারা এ নীতিকে বৈষম্যমূলক বলেছে।

শিল্পসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, মূলত সীমান্ত সংঘর্ষকে ঘিরে চীন ও ভারতের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি হয়েছে। ওই ঘটনায় ভারতের ২০ সেনা নিহত হয়েছিল। এর পর থেকেই চীনের বিরুদ্ধে ব্যাবসায়িকভাবে বিভিন্ন ব্যবস্থা নিচ্ছে ভারত। যেমন দেশটির ৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়েছে ভারতে। এ ছাড়া ৫জি প্রকল্পে চীনা কম্পানিগুলোকে না নেওয়ারও চিন্তা চলছে।

ফলে প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নতুন এ নীতি বিশেষ করে চীনা বিনিয়োগ আটকানোর লক্ষ্যে বলেই অনেকে মনে করছেন। ঊর্ধ্বতন এক ভারতীয় কর্মকর্তা বলেন, ‘চীনা বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অনেক ক্লিয়ারেন্সের প্রয়োজন রয়েছে।’

ভারতের কর্মকর্তাদের আরেকটি সূত্র জানায়, নতুন নীতি হওয়ার পর থেকে চীনা বিনিয়োগকারীদের ৪০-৫০টি প্রস্তাব আটকে আছে, যা এখন পুনর্বিবেচনা করা হচ্ছে। এসব প্রস্তাব নিয়ে বিনিয়োগকারীদের কাছে বিভিন্ন ব্যাখ্যা তলব করছেন ভারতীয় কর্মকর্তারা।

রিসার্চ গ্রুপ ব্রুকিংস গত মার্চে জানায়, চীনা কম্পানিগুলোর বিদ্যমান ও পরিকল্পনার আওতায় ২৬ বিলিয়ন ডলারের ওপর বিনিয়োগ রয়েছে ভারতে। সূত্র : রয়টার্স।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা