kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

বকেয়া পরিশোধে গ্রামীণফোনের শেয়ারে বড় উত্থান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বকেয়া আদায় নিয়ে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সঙ্গে পুঁজিবাজারের বড় মূলধনী কম্পানি গ্রামীণফোনের দ্বন্দ্ব সমাধানের পথে এগিয়েছে। উচ্চ আদালতের আদেশে সরকারকে এক হাজার কোটি টাকা দিয়েছে গ্রামীণফোন। আর দ্বন্দ্ব নিরসনে অগ্রগতির কারণে গতকাল রবিবার কম্পানির শেয়ারের দামে উত্থান হয়েছে। বিক্রির চাপ থেকে ফিরে গ্রামীণফোনের শেয়ার কিনতে সক্রিয় হয়েছেন বিনিয়োগকারীরা। আর এই কম্পানিটির শেয়ারের মূল্যবৃদ্ধি পাওয়ায় গতকাল বড় পতন থেকে রক্ষা পেয়েছে পুঁজিবাজার। যদিও মূল্যসূচক ও লেনদেন কমার মধ্য দিয়ে পুঁজিবাজারের লেনদেন শেষ হয়েছে।

গত বছরের মাঝামাঝি থেকে প্রায় সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকার বকেয়া নিয়ে বিটিআরসি ও গ্রামীণফোনের মধ্যে টানাপড়েন চলছিল। সালিসের মাধ্যমে নিজেরা সমাধানে ব্যর্থ হয়ে দ্বন্দ্বের বিষয়টি উচ্চ আদালতে গড়ায়। গত বৃহস্পতিবার আদালত সোমবারের (আজ) মধ্যে বকেয়ার এক হাজার কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ দেন। বকেয়া আদায় নিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থার সঙ্গে দ্বন্দ্বের কারণে আতঙ্কিত হয় বিনিয়োগকারীরা। অনেকে শেয়ার বিক্রি করলে দাম কমে যায়। তবে দ্বন্দ্ব নিরসনের আশায় তিন দিন ধরে গ্রামীণফোনের শেয়ারের দাম ঊর্ধ্বমুখী। গতকাল কম্পানির শেয়ারের দাম আরো বেড়েছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) তথ্যানুযায়ী গতকাল গ্রামীণফোনের শেয়ারের দাম বেড়েছে ২২ দশমিক ৪ টাকা। শতকরা হিসাবে এক দিনেই কম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৭.৫৮ শতাংশ। আগের দিন ২৯৫ টাকায় লেনদেন শেষ হলেও গতকাল গ্রামীণফোনের শেয়ারের দাম দাঁড়িয়েছে ৩১৮ টাকা। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে গ্রামীণফোনের শেয়ার। কম্পানিটির ৪৭ কোটি দুই লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৬৮ কোটি ৪৫ লাখ টাকা আর সূচক কমেছে ৩৪ পয়েন্ট। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২৩ কোটি ৩২ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ৮৫ পয়েন্ট।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা