kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

ডিএসইর এমডি নিয়োগে অসন্তোষ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দীর্ঘ ছয় মাসের বেশি সময়ের পর আইসিবির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী ছানাউল হককে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের-ডিএসই ব্যবস্থাপনা পরিচালক-এমডি নিয়োগ দেওয়া নিয়ে পরিচালনা পর্ষদে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে অস্বচ্ছতা ও অসন্তোষ প্রকাশ করলে তাঁদের মামলা করার পরামর্শ দিয়েছেন ডিএসইর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল হাশেম।

পুঁজিবাজারে প্রাইমারি নিয়ন্ত্রক ডিএসইতে ছানাউল হককে এমডি নিয়োগ না দিতে আপত্তি তুলেছিলেন তিনজন শেয়ারহোল্ডার পরিচালক। আপত্তির পক্ষে দলিলাদি তুলে ধরে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে অবহিত করলেও সে বিষটি আমলে না নিয়েই গত বুধবার নতুন এমডি নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের সভায় বিষয়টি নিয়ে অসন্তোষ ও বিতর্ক দেখা দিয়েছে। পর্ষদের একটি অংশ নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অস্বচ্ছতার প্রশ্ন তোলে। নিয়োগ প্রক্রিয়াকে স্বচ্ছ দাবি করে ডিএসই চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল হাশেম পর্ষদ সভায় বলেছেন, স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এমডি নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। যদি কারো মনে হয় এমডি নিয়োগে স্বচ্ছ প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়নি তাহলে তিনি মামলা করতে পারেন।

পর্ষদ সভার পর ডিএসই গিয়ে ২০-২৫ জন সদস্য পর্ষদের কাছে কাজী সানাউল হককে এমডি করায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। ক্রান্তিকালে পুঁজিবাজার গতিশীল করতে সবার সম্মতিক্রমে একজন স্বচ্ছ ব্যক্তিকে এমডি নিয়োগ দেওয়ার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

বৈঠকের পর ডিএসইর পর্ষদে উপস্থিত ছিলেন এমন একজন পরিচালক নাম না প্রকাশের শর্তে কালের কণ্ঠকে বলেন, ডিএসইর এমডি নিয়োগ নিয়ে অস্বচ্ছ প্রক্রিয়া ভালো হয়নি। ডিএসইর জন্য এটি খুবই খারাপ উদাহরণ হয়ে থাকবে। পুরো বাজারকে হয়তো ভুগতে হবে। পুঁজিবাজার একটি ক্ষতির মধ্যে রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে একজন স্বচ্ছ ব্যক্তিকে ডিএসইর এমডি করা উচিত ছিল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা