kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

একনেক

২০৯ কোটি টাকা ব্যয়ে চ্যান্সারি ভবন হচ্ছে জেদ্দায়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সৌদি আরবের জেদ্দা ও শহরের বাইরে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সেবা পাওয়ার সুবিধার্থে একটি চ্যান্সারি কমপ্লেক্স নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলানগরের এনইসি সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ২০৯ কোটি টাকা ব্যয়ে এসংক্রান্ত একটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। হজ ও ওমরাহ পালনের জন্য যেসব বাংলাদেশি জেদ্দা যাবেন, তাঁদের সহযোগিতা করার জন্য চ্যান্সারি স্থাপন করা হচ্ছে। এ ছাড়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য পানি, পয়োনিষ্কাশন ও বিশ্রামের সুবিধা নিশ্চিত করতে চ্যান্সারি কমপ্লেক্স নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একনেক সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিকে গতকালের একনেক সভায় চার হাজার ৬৩৬ কোটি টাকা ব্যয়ে মোট পাঁচটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

গতি এসেছে সেই প্যাথলজি সেন্টার স্থাপন প্রকল্পে : রোগীদের রক্ত, কফ, মল-মূত্রসহ সব ধরনের প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা-নিরীক্ষা কম টাকায়, কম সময়ে করার জন্য ২০১০ সালে রাজধানীর শেরেবাংলানগর থানার পাশে ১২ তলাবিশিষ্ট একটি ভবন নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টার প্রতিষ্ঠার জন্য বহুতল এই ভবনটির কাজ শেষ হয় ২০১৭ সালে। এর পর থেকে ভবনটি শুধু দাঁড়িয়ে আছে। কিন্তু রোগীদের কোনো লাইন নেই। জনবলের অভাবে ৯ বছর পেরিয়ে গেলেও ইনস্টিটিউট এখনো চালু হয়নি। প্রকল্পটি এত দিন ঘুরপাক খাচ্ছিল সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে।

প্রকল্পটির দুর্দশা নিয়ে গত বৃহস্পতিবার একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে কালের কণ্ঠ। তারপর নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। দুই কর্মদিবসের (রবিবার-সোমবার) মধ্যে সব প্রক্রিয়া শেষ করে অবশেষে গতকাল একনেক সভায় প্রকল্পটি পঞ্চম দফায় মেয়াদ বাড়িয়ে অনুমোদন করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা