kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

এশিয়ায় দাম স্থিতিশীল হবে মধ্য নভেম্বরে

বাণিজ্য ডেস্ক   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বৃষ্টিপাত ও বন্যায় ভারতে পেঁয়াজের আবাদ নষ্ট হওয়ায় আগাম ফসল আসেনি। ফলে অস্বাভাবিক বেড়ে যায় অত্যাবশ্যকীয় এ খাদ্যপণ্যের দাম। এতে দেশটি পেঁয়াজ রপ্তানি নিষিদ্ধ করলে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও নেপালসহ এশিয়ার পেঁয়াজ আমদানিকারক দেশগুলোর বাজার অস্থির হয়ে ওঠে। এ সুযোগে মিয়ানমার, আফগানিস্তান, চীন, মিসর, তুরস্ক ও পাকিস্তানসহ উৎপাদনকারী দেশগুলো রপ্তানি বাড়ালেও তাতে বাজার খুব বেশি স্থিতিশীল হয়নি। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় রপ্তানিকারক দেশ ভারত। এ দেশটির বাজার স্থিতিশীল না হলে এশিয়ার বাজারও স্বাভাবিক হবে না।

ভারতের প্রায় ৯০ শতাংশ পেঁয়াজ আসে কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র, মধ্য প্রদেশ, গুজরাট, রাজস্থান, উত্তর প্রদেশ, বিহার এবং পশ্চিমবঙ্গ থেকে। কিন্তু বৃষ্টিপাত ও বন্যায় এ অঞ্চলগুলোর ফসল নষ্ট হওয়ায় এ মাসের শুরুতে দেশটিতে পাইকারি বাজারে প্রতি ১০০ কেজি পেঁয়াজের দাম ওঠে ৪৫০০ রুপি।

মুম্বাইভিত্তিক ওনিয়ন এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট অজিত শাহ বলেন, বাজার স্থিতিশীল করতে এখন ভারতকেও পেঁয়াজ আমদানি করতে হচ্ছে। গ্রীষ্মের পেঁয়াজ বাজারে আসা ছাড়া দাম কমবে বলে মনে হচ্ছে না। অর্থাৎ আগামী মধ্য নভেম্বরের আগে পেঁয়াজের বাজার স্থিতিশীল হবে না। তিনি বলেন, ভারতের বাজারে নতুন পেঁয়াজ আসার পর দাম কমে এলে তখন ভারত রপ্তানি শুরু করবে। তখন এশিয়ার বাজারও স্থিতিশীল হবে।

ভারতে মূলত তিন মৌসুমে পেঁয়াজ উৎপাদন হয়। এর মধ্যে খরিপ মৌসুমের পেঁয়াজ আসে অক্টোবর-ডিসেম্বর সময়ে, বিলম্বিত খরিপ মৌসুমের পেঁয়াজ আসে জানুয়ারি-মার্চে এবং রবি মৌসুমের পেঁয়াজ আসে এপ্রিলে। কিন্তু প্রতিকূল আবহাওয়ায় খরিপ মৌসুমের পেঁয়াজ বাজারে আসতে আগামী মধ্য নভেম্বর পর্যন্ত সময় লেগে যাবে। তা ছাড়া বন্যার কারণে এবার আবাদ কমেছে ব্যাপকভাবে। ২০১৭-১৮ মৌসুমে ৩.৫৪ লাখ হেক্টর জমিতে আবাদ হলেও ২০১৮-১৯ মৌসুমে আবাদ হয়েছে ২.৬৬ লাখ হেক্টর জমিতে।

ভারতের রপ্তানি বন্ধ হওয়ায় মিয়ানমার, মিসর, তুরস্ক, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের পেঁয়াজ রপ্তানি বেড়ে যায়। ভারতের কৃষি ও প্রক্রিয়াজাত খাদ্যপণ্য রপ্তানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (এপিএফপিইডিএ) তথ্য অনুযায়ী ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ভারত ২২ লাখ টন পেঁয়াজ রপ্তানি করে, যা সব এশিয়ার দেশগুলোর মোট রপ্তানির অর্ধেকের বেশি। রয়টার্স, ইন্ডিয়া টুডে, বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা