kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

সাবস্ক্রিপশনভিত্তিক ব্যবসায় সম্ভাবনা দেখছেন নির্বাহীরা

৩১ শতাংশ নির্বাহী মনে করেন ভবিষ্যতে তাঁদের কম্পানির শতভাগ রাজস্ব আসবে এ মডেল থেকে

বাণিজ্য ডেস্ক   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাবস্ক্রিপশনভিত্তিক ব্যবসায় সম্ভাবনা দেখছেন নির্বাহীরা

ডিজিটাল অর্থনীতির জোরালো প্রবৃদ্ধি ও ভোক্তা চাহিদা বাড়ায় এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের কম্পানিগুলো ক্রমাগত সাবস্ক্রিপশনভিত্তিক ব্যাবসায়িক মডেলের দিকে যাচ্ছে। যাকে একটি নতুন সম্ভাবনা হিসেবে দেখছে তারা। বৈশ্বিক আর্থিক সেবা প্রতিষ্ঠান সিটির একটি গবেষণা প্রতিবেদনে এ দাবি করা হয়। এতে বলা হয়, এ অঞ্চলের কম্পানিগুলো বারংবার ফি সংগ্রেহের মডেলের দিকে যাচ্ছে। ফলে গ্রাহকরা নির্দিষ্ট পণ্য বা সেবা একবার ক্রয় না করে তা ক্রমাগত পেতে সাবস্ক্রাইব করতে হচ্ছে।

সিটির গবেষণা জরিপে ৫৮০ নির্বাহীর মধ্যে ৪৬ শতাংশ বিশ্বাস করেন তাঁদের সংশ্লিষ্ট শিল্পে আগামী তিন বছরে সাবস্ক্রিপশনভিত্তিক মডেল ব্যাপক বিস্তৃত হবে। এমনকি ৩১ শতাংশ মনে করেন ভবিষ্যতে তাঁদের কম্পানির শতভাগ রাজস্ব আসবে এ মডেল থেকে।

‘সাইনিং আপ টু দ্য সাবস্ক্রিপশন ইকোনমি : দ্য রেস ফর রেকারিং রেভিনিউ ইন এশিয়া প্যাসিফিক’ শীর্ষক শিরোনামে জরিপে এ অঞ্চলের ১৪ দেশের নির্বাহীদের মতামত নেওয়া হয়। এতে বীমা, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ, ভোক্তা ও স্বাস্থ্যসেবা পণ্য, প্রযুক্তি, মিডিয়া ও টেলিকম খাতের কম্পানিগুলোর নির্বাহীদের মতামত নেওয়া হয়। সেসব নির্বাহীর মতামত উঠে আসে যেসব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বিভিন্ন পর্যায়ে সাবস্ক্রিপশনভিত্তিক ব্যাবসায়িক মডেল কার্যকর করেছে। এসব প্রতিষ্ঠানের অর্ধেকেরই বার্ষিক আয় দুই বিলিয়ন ডলার বা তার বেশি। বাকিদের আয় ৫০০ মিলিয়ন থেকে ১.৯৯ বিলিয়ন ডলার পর্যন্ত।

জরিপে যেসব কম্পানি সাবস্ক্রিপশনভিত্তিক ব্যাবসায়িক মডেল বাস্তবায়নের পরিকল্পনা করছে তাদের ৭৬ শতাংশ গ্রাহকদের কাছ থেকে ভালো সাড়া পাওয়ার ব্যাপারে বেশ আশাবাদী। তাদের মতে, এতে দীর্ঘ মেয়োদে গ্রাহকদের সঙ্গে একটি সুসম্পর্ক তৈরি হয়। এর পাশাপাশি ৭১ শতাংশ দীর্ঘ মেয়াদে রাজস্ব প্রবৃদ্ধির আশা করছে।

লংটিটিউডের সিইও রব মিশেল বলেন, সাবস্ক্রাইব মডেল বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ক্রমান্বয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে, কিন্তু বিস্ময়করভাবে এশিয়া প্যাসিফিকের বেশ কিছু খাতের কম্পানিগুলো এটি গ্রহণে দ্রুত ধাবিত হচ্ছে। আমরা আগামী কয়েক বছরে বেশ বড়সড় পরিবর্তন দেখতে পাব। কারণ কম্পানিগুলো এতে গ্রাহক আগ্রহ পাচ্ছে ও তাদের মুনাফা বাড়ছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা