kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

‘নারীর অর্থনৈতিক উন্নয়নে নিরাপদ পরিবেশ প্রয়োজন’

বাণিজ্য ডেস্ক   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘নারীর অর্থনৈতিক উন্নয়নে নিরাপদ পরিবেশ প্রয়োজন’

মতবিনিময়সভায় সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ওমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট সেলিনা আহমাদসহ অন্যরা

দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে নারীরা। গৃহস্থালি কাজ থেকে শুরু করে চাকরি, অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীদের ব্যাপক অংশগ্রহণ থাকা সত্ত্বেও নানা প্রতিবন্ধকতা এবং সামাজিক নিরাপত্তাহীনতার কারণে নানা রকম হয়রানি ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছে তারা। তাই নারীর ক্ষমতায়নে সামাজিক ও পারিবারিক বাধা দূর করতে হবে।

গতকাল রবিবার রাজধানীর স্পেক্ট্রা কনভেনশন সেন্টারে সুইস এজেন্সি ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড কো-অপারেশন (এসডিসি) ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) যৌথ অর্থায়নে সুইসকন্টাক্ট দ্বারা বাস্তবায়িত বি-স্কিলফুল প্রকল্পটি ‘অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে নারীর অংশগ্রহণ : অপ্রচলিত পেশায় অংশগ্রহণের সম্ভাবনা ও প্রতিবন্ধকতা’ শীর্ষক শিরোনামে একটি মতবিনিময়সভার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ওমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট সেলিনা আহমাদ।

তিনি আরো বলেন, নারীদের দক্ষতা উন্নয়ন এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য একটি সুরক্ষিত পরিবেশ প্রয়োজন। পাশাপাশি নারীদের দক্ষতা উন্নয়নের ক্ষেত্রে বি-স্কিলফুল প্রকল্পের প্রশংসা করেন।

এসডিসির সিনিয়র প্রগ্রাম ম্যানেজার সোহেল ইবনে আলী তাঁর বক্তব্যে অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের বিদ্যমান প্রতিবন্ধকতাগুলো উল্লেখ করে স্বাধীন সিদ্ধান্ত গ্রহণে নারীর ক্ষমতায়নে গুরুত্ব দেন। তিনি বলেন, অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতকে নারীবান্ধব হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

প্রসঙ্গত, সুইসকন্টাক্ট, বাংলাদেশ এনজিও বিষয়ক ব্যুরোতে নিবন্ধিত একটি আন্তর্জাতিক বেসরকারি সংস্থা, যা ১৯৭৯ সাল থেকে বাংলাদেশে উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। বি-স্কিলফুল প্রকল্পের লক্ষ্য হলো ৪০ হাজার দরিদ্র ও অনগ্রসর নারী ও পুরুষকে ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে শ্রমবাজারে প্রবেশের সুযোগ ও আয় বৃদ্ধি করা এবং কর্মক্ষেত্রে তাদের মৌলিক অধিকারগুলোর যথাযথ সুরক্ষার ব্যবস্থা করা। বি-স্কিলফুল, দিনাজপুর, জয়পুরহাট, বগুড়া, টাঙ্গাইল, গাজীপুর এবং যশোর জেলায় স্থানীয় প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দক্ষতা উন্নয়নমূলক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা