kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সূচক ও লেনদেন কমেছে

বিক্রির চাপের মধ্যেও দুর্বল কম্পানি চাঙ্গা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিক্রির চাপের মধ্যেও দুর্বল কম্পানি চাঙ্গা

পুঁজিবাজারে শেয়ার বিক্রির চাপের সুযোগে দুর্বল ও লোকসানি কম্পানির শেয়ারের দাম আবারও বাড়ছে। কোনো কোনো কম্পানির শেয়ারের দাম সার্কিট ব্রেকারের কাছে গিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। আবার মিউচুয়াল ফান্ড খাতের বিক্রির চাপ আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে।

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস গতকাল রবিবার দেশের দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচক কমার সঙ্গে লেনদেনের পরিমাণও হ্রাস পেয়েছে। ডিএসইতে প্রায় ৬০ শতাংশ আর সিএসইতে ৫৯ শতাংশ কম্পানির শেয়ারের দাম হ্রাস পেয়েছে।

রবিবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৩২ কোটি ৪০ লাখ টাকা আর সূচক কমেছে ২৫ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৪০২ কোটি ৯১ লাখ টাকা আর সূচক কমেছিল ৪৪ পয়েন্ট। সেই হিসাবে সূচক কমার সঙ্গে লেনদেনও হ্রাস পেয়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, লেনদেন শুরুর পর থেকে শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়ে। পরে শেয়ার কেনার চাপ সামান্য বাড়লেও সূচক কমার মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়। দিন শেষে সূচক দাঁড়ায় পাঁচ হাজার ৯৫ পয়েন্ট। ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৯ পয়েন্ট কমে এক হাজার ১৮৩ পয়েন্ট ও ডিএস-৩০ সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৮০০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে মুন্নু সিরামিকস। কম্পানিটির লেনদেন হয়েছে ১৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ওয়াটা কেমিক্যালের লেনদেন হয়েছে ১১ কোটি ১১ লাখ টাকা। আর তৃতীয় স্থানে থাকা মুন্নু স্টাফলার্সের লেনদেন হয়েছে ১৪০ কোটি ৬৮ লাখ টাকা।

অন্য বাজার সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১৩ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ৪৬ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১৭ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। রবিবার লেনদেন হওয়া ২৩০টি কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৫৮টির, কমেছে ১৩৬টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টি কম্পানির শেয়ারের দাম

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা