kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পাঁচ দিনের চার দিনই পতন

বাজার মূলধন কমল ৭৫৯৪ কোটি টাকা

লেনদেন কমেছে ১২৬ কোটি টাকা, সূচক কমেছে ১৪১ পয়েন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাজার মূলধন কমল ৭৫৯৪ কোটি টাকা

গত সপ্তাহে পুঁজিবাজারে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে চার দিন শেয়ার বিক্রির চাপ থাকায় মূল্যসূচক হ্রাস পেয়েছে। এতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক লেনদেন হ্রাস পাওয়ার পাশাপাশি বাজার মূলধন প্রায় সাড়ে সাত হাজার কোটি টাকা কমেছে। মূলত বাজারে বিক্রয়যোগ্য শেয়ারের দাম কমে যাওয়ায় বাজার মূলধন হ্রাস পেয়েছে।

গত ২৫ আগস্ট থেকে ২৯ আগস্ট পর্যন্ত লেনদেনে ডিএসইতে চার দিন মূল্যসূচক কমেছে। এতে প্রধান সূচক হ্রাস পেয়েছে ১৪১ পয়েন্ট বা ২.৬৯ শতাংশ। আর লেনদেন হ্রাস পেয়েছে ১২৬ কোটি টাকা। গড়ে প্রতিদিন লেনদেন হ্রাস পেয়েছে ২.৬০ শতাংশ।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, বিদায়ি সপ্তাহে ডিএসইর সব সূচকের পতন হয়েছে। যদিও আগের সপ্তাহে সূচকের উত্থান হয়েছিল। লেনদেনে অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৮৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। লেনদেন হওয়া ৩৫৫ কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৪৮টির, কমেছে ৩০২টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে পাঁচটি কম্পানির শেয়ারের দাম।

সপ্তাহব্যাপী ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে দুই হাজার ২৪৩ কোটি ৫৩ লাখ ৮৪ হাজার টাকা। যা আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল দুই হাজার ৩৬৯ কোটি ৫৯ লাখ ৭৬ হাজার টাকা। সেই হিসাবে আগের সপ্তাহের চেয়ে লেনদেন হ্রাস পেয়েছে ৫.৩২ শতাংশ বা ১২৬ কোটি পাঁচ লাখ ৯১ হাজার টাকা।

আগের সপ্তাহে গড়ে প্রতিদিন লেনদেন হয় ৪৬০ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। তবে সদ্যোবিদায়ি সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৪৪৮ কোটি টাকা ৭০ লাখ টাকা।

বাজার মূলধনের হিসাবে দেখা যায়, সপ্তাহ ব্যবধানে ডিএসইর মূলধন হ্রাস পেয়েছে সাত হাজার ৫৯৪ কোটি টাকা, শতকরা হিসাবে ১.৯৬ শতাংশ। সপ্তাহের শুরুতে ডিএসইর বাজার মূলধন ছিল তিন লাখ ৮৮ হাজার ৪৪০ কোটি ২৬ লাখ ৩২ হাজার টাকা। সপ্তাহ শেষে মূলধন কমে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৮০ হাজার ৮৪৫ কোটি ৭২ হাজার টাকা।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা