kalerkantho

১২ লাখ

নজর কেড়েছে শ্রীবরদীর ‘বাদশাহ’

শেরপুর প্রতিনিধি   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নজর কেড়েছে শ্রীবরদীর ‘বাদশাহ’

শেরপুরে কোরবানির হাট ধরতে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের গবাদি পশু লালন-পালন করছে। শ্রীবরদী উপজেলার ভেলুয়া এলাকার দুলাল মিয়া দোলনের লালন-পালন করা লাল-কালো রঙের মোটাতাজা একটি গরু সবার নজর কেড়েছে। এর আগে কখনো এত বড় গরু এই এলাকায় দেখা যায়নি। আদর করে মালিক গরুটির নাম রেখেছেন ‘বাদশাহ’। গরুটির দাম হাঁকা হচ্ছে ১২ লাখ টাকা।  

দুলাল মিয়া জানান, প্রায় তিন বছর আগে গরুটি পার্শ্ববর্তী একটি খামার থেকে কিনে আনেন। এটি দেশীয় জাতের। গরুটি লম্বায় ৯ ফুট, উচ্চতা ৫ ফুট এবং বুকের বেড় ৭.৫ ফুট। বর্তমানে গরুটির ওজন প্রায় ২৭ মণ। নিজের বাড়ির গোয়াল ঘরে পরম যত্নে তিনি ও তাঁর স্ত্রী গরুটির পরিচর্যা করেছেন। দেশীয় পদ্ধতিতে প্রাকৃতিক ঘাস, শুকনা খড়, খৈল, ভূষি, ভাত, বিচি কলা খাওয়ানোর পর মোটাতাজা হয়েছে। দুলাল মিয়া বলেন, ‘ঈদকে সামনে রেখে ধারদেনা করে এবার দুটি গরু লালন-পালন করেছি। ভালো দামে বিক্রি করতে পারলে আমার পরিশ্রম স্বার্থক হবে।’

শ্রীবরদী উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের ভেটেরিনারি সার্জন ডা. মেহেদি হাসান বলেন, ‘গরুটি সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে মোটাতাজা করা হয়েছে। গরু মোটাতাজা করার জন্য কোনো ইনজেকশন বা কৃত্রিম ওষুধ প্রয়োগ করা হয়নি। আমরা নিয়মিত বাদশাহর বিষয়টি মনিটর করেছি।’

মন্তব্য