kalerkantho

এ সুবিধা কার্যকর হবে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের অনুমোদনে

শুল্ক-কর ছাড় ডেঙ্গু টেস্টের যন্ত্রপাতি আমদানিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ডেঙ্গু শনাক্তকরণে ব্যবহৃত রিয়েজেন্ট, পরীক্ষার কিট, প্লাটিলেট ও প্লাজমা পরীক্ষার কিট দেশের বাইরে থেকে আনতে আমদানি শুল্ক, মূল্য সংযোজন কর (মূসক), আগাম কর ও অগ্রিম আয়করে ছাড় দিয়েছে সরকার। এ সুবিধা আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বহাল থাকবে। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের অনুমোদনে এ সুবিধা কার্যকর হবে। আমদানীকৃত পণ্য মানসম্মত কি না তা ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর নিয়মিত পর্যবেক্ষণও করবে। গতকাল জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) থেকে এ বিষয়ে এক আদেশ দেওয়া হয়েছে।

এনবিআরের এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, কাস্টমস অ্যাক্ট, ১৯৬৯ এবং মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ তে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে জনস্বার্থে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সঙ্গে পরামর্শক্রমে সরকার ডেঙ্গু টেস্ট কিট, ডেঙ্গু রিএজেন্ট এবং কিটস ফর প্লাটিলেট অ্যান্ড প্লাজমার ওপর আমদানি শুল্ক, মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট), আগাম কর এবং অগ্রিম আয়করে অব্যাহতি প্রদান করা হলো।

গত মঙ্গলবার জনস্বার্থে ডেঙ্গু শনাক্তকরণে ব্যবহার্য রিয়েজেন্ট, কিট ও কিট উৎপাদনের কাঁচামালের ওপর সাময়িকভাবে আমদানি শুল্ক ও মূসক প্রত্যাহারসহ সরাসরি আমদানির সুবিধা দিতে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে এনবিআর চেয়ারম্যান বরাবরে অনুরোধপত্র পাঠানো হয়েছে। ওই চিঠিতে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গু শনাক্তকরণে ব্যবহার্য রিয়েজেন্ট, কিট ও কিট উৎপাদনের কাঁচামালের ওপর আরোপিত আমদানি শুল্ক ও ভ্যাট প্রত্যাহার সুবিধা দেওয়ার সুপারিশ করা হয়। দেশে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যাওয়ায় এবং ডেঙ্গু শনাক্তকরণের কিট বাজারে অপ্রতুল হওয়ায় ডায়াগনস্টিক রিয়েজেন্ট অ্যান্ড ইকুইপমেন্ট ব্যবসায়ীরা রিয়েজেন্ট, কিট ও কিট উৎপাদনের কাঁচামালের ওপর সাময়িকভাবে আমদানি শুল্ক ও ভ্যাট প্রত্যাহারসহ সরাসরি আমদানির সুবিধার দাবি জানায়। এই পরিস্থিতিতে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর জরুরি বৈঠকও করে।

 

মন্তব্য