kalerkantho

মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেনে ছন্দঃপতন

► জুনে ১৬ লাখ গ্রাহক বাড়লেও লেনদেন কমেছে ২৫ শতাংশ
► দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে প্রায় সাড়ে ২২ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হঠাৎ বড় ছন্দপতন হয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেনে। গত জুনে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে প্রায় ১৬ লাখ গ্রাহক বাড়লেও লেনদেন আশঙ্কাজনক হারে কমেছে। এক মাসের ব্যবধানে লেনদেন কমার হার প্রায় ২৫ শতাংশ। মোট লেনদেনের পাশাপাশি দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে প্রায় সাড়ে ২২ শতাংশ। এ মাসে ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট, ব্যক্তি থেকে ব্যক্তি হিসাবে অর্থ স্থানান্তর, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বেতন-ভাতা পরিশোধ, ইউটিলিটি বিল পরিশোধ, কেনাকাটার বিল ও সরকারি পরিশোধ সবই কমেছে। তবে শুধু রেমিট্যান্সে বেড়েছে ২ শতাংশের মতো।

মে মাসের তৃতীয় সপ্তাহে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের লেনদেন সীমা বাড়ানো হয়েছে। এর পরও জুন মাসে লেনেদেনের এই ছন্দপতনের কারণ হিসেবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, ঈদপরবর্তী মাস হওয়ার কারণেই লেনদেন কমেছে।

গত ৫ জুন ঈদুল ফিতর পালিত হয়। ফলে মে মাসে মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেনে বড় ধরনের উল্লম্ফন ঘটে। ওই মাসে মোট লেনদেন চার হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায়। আর দৈনিক লেনদেন এক হাজার ৩০০ কোটি টাকার ঘর অতিক্রম করে। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, গত জুন শেষে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে মোট গ্রাহকের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত কোটি ২০ লাখ ৫৪ হাজার। এর মধ্যে সক্রিয় গ্রাহক আছে তিন কোটি ২৪ লাখ ৫৮ হাজার। সে হিসাবে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের তিন কোটি ৯৫ লাখ ৯৬ হাজার বা প্রায় ৫৫ শতাংশ হিসাবই বর্তমানে নিষ্ক্রিয়। সাধারণ নিয়মে টানা তিন মাসে একবারও লেনদেন হয়নি এমন হিসাবকে নিষ্ক্রিয় বলে গণ্য করা হয়। গত মার্চে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের হিসাব সংখ্যা ছিল সাত কোটি চার লাখ ৫৬ হাজার। ফলে এক মাসের ব্যবধানে নতুন গ্রাহক বেড়েছে ১৫ লাখ ৯৮ হাজার বা ২.০ শতাংশ। নতুন গ্রাহক বাড়ার সঙ্গে এ মাসে সক্রিয় গ্রাহক বেড়েছে প্রায় তিন লাখ ২৯ হাজার বা ১ শতাংশ। প্রতিবেদনে আরো দেখা যায়, জুনে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে মোট লেনদেন হয়েছে ৩১ হাজার ৭০৮ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। মে মাসে যা ছিল ৪২ হাজার ২৩৬ কোটি ২৩ লাখ টাকা। এক মাসের ব্যবধানে মোট লেনদেন কমেছে ২৪.৯ শতাংশ।

মন্তব্য