kalerkantho

দেশের শ্রমশক্তির ৮৭% অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে থাকলেও নীতিমালা নেই

বাণিজ্য ডেস্ক   

২ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশের মোট শ্রমশক্তির প্রায় ৮৭ শতাংশ অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে নিয়োজিত। প্রতিবছর প্রায় ২০ লাখ নারী-পুরুষ শ্রমবাজারে প্রবেশ করে, যাদের মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয় অপ্রাতিষ্ঠানিক শিল্প খাতে। অর্থনৈতিকভাবে সচ্ছল নয় এবং নাগরিক হিসেবে সামাজিক সুরক্ষা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর একটি অন্যতম ও অবিচ্ছেদ্য অংশ হলো অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে নিয়োজিত শ্রমজীবী।

অপ্রাতিষ্ঠানিক অর্থনীতিতে নিয়োজিত শ্রমিক এবং উদ্যোক্তা উভয়ই বিভিন্ন সমস্যায় জড়িত। মোট দেশজ উৎপাদনে অবদান এবং কর্মসংস্থানের গুরুত্ব বিবেচনা করলে দেখা যায়, দেশের অর্থনীতি এখনো অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের ওপর ভিত্তি করেই অগ্রসর হচ্ছে। কিন্তু দেশে অপ্রাতিষ্ঠানিক শিল্প উন্নয়নের জন্য জাতীয় নীতিমালা নেই। এমনকি জাতীয় শিল্পনীতি ২০১৬-তে অপ্রাতিষ্ঠানিক শিল্প খাত বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত হয়নি। তাই অলাভজনক প্রতিষ্ঠান আইএসআইএসসি অপ্রাতিষ্ঠানিক শিল্পের নীতিমালার জন্য একটি প্রাথমিক খসড়া রূপরেখা তৈরি করেছে। এই প্রাথমিক খসড়া রূপরেখাটি আরো মানসম্মত করার জন্য আইএসআইএসসি ও একশনএইড বাংলাদেশ যৌথভাবে প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সভাকক্ষে অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের খসড়া নীতিমালা নিয়ে এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন মির্জা নূরুল গণি শোভন, চেয়ারম্যান, আইএসআইএসসি। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মো. ফারুক হোসেন, নির্বাহী চেয়ারম্যান (সচিব), জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা