kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

কম্পানির পরিচালক ও উদ্যোক্তা

৩০ শতাংশ শেয়ার না থাকলে ভিন্ন ক্যাটাগরি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



৩০ শতাংশ শেয়ার না থাকলে ভিন্ন ক্যাটাগরি

প্রাইভেট প্লেসমেন্ট নৈরাজ্যে লাগাম টানার পর কম্পানির উদ্যোক্তা ও পরিচালকের সম্মিলিত শেয়ার ধারণ ও লভ্যাংশ হিসেবে বোনাস শেয়ারে কড়া অবস্থান নিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। উদ্যোক্তা ও পরিচালকের ৩০ শতাংশ এবং পরিচালকের ২ শতাংশ শেয়ার নিশ্চিত করতে হবে। কারণ উল্লেখ ছাড়া এখন থেকে কোনো কম্পানি বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করতে পারবে না।

গতকাল মঙ্গলবার কমিশনের নিয়মিত সভায় উদ্যোক্তা ও পরিচালকের সম্মিলিতভাবে ৩০ শতাংশ, পরিচালকের ২ শতাংশ শেয়ার ধারণ বাধ্যতামূলক এবং বোনাস ইস্যুর বিষয়ে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে। কম্পানি বছরজুড়ে ব্যবসার পর মুনাফা করলেও শেয়ারহোল্ডারদের নগদ অর্থ না দিয়ে বোনাস লভ্যাংশ দিয়ে অবস্থান টিকিয়ে রাখছে। এতে মুনাফার পুরো অংশই কম্পানি রেখে দিয়ে বোনাস শেয়ারের মাধ্যমে পেইড-আপ বৃদ্ধি করছে।

কমিশনের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ভবিষ্যতে কম্পানির সম্প্রসারণ, সুষমকরণ, আধুনিকরণ, পুনর্গঠন ও বিস্তার (বিএমআরই) এবং গুণগতমান উন্নয়ন ব্যতীত বোনাস শেয়ার ঘোষণা করা যাবে না। বোনাস শেয়ার ঘোষণা নিয়ে মূল্য সংবেদনশীল তথ্য (পিএসআই) প্রকাশের সময় বোনাস শেয়ার ঘোষণার কারণ ও রেখে দেওয়া মুনাফা কোথায় ব্যবহার করা হবে তা উল্লেখ করতে হবে। এ বিষয়ে কমিশন শিগগিরই নোটিফিকেশন জারি করবে।

৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণ না করলে অন্য ক্যাটাগরি : কম্পানির উদ্যোক্তা ও পরিচালকের সম্মিলিতভাবে ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করে কমিশন বলছে, এই নির্দেশনা না মানলে ট্রেডিং বোর্ডে একটি পৃথক ক্যাটাগরি গঠন করা হবে।

কমিশনের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কম্পানিকে স্বতন্ত্র পরিচালক ব্যতীত অন্য সব উদ্যোক্তা-পরিচালকের সম্মিলিতভাবে ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণ করতে হবে। এটি না মানলে স্বতন্ত্র পরিচালক ছাড়া অন্যান্য পরিচালক ও উদ্যোক্তা শেয়ার বিক্রি, হস্তান্তর ও বন্ধক কার্যকর করতে পারবে না। তবে ঋণখেলাপি হলে বন্ধকী শেয়ার বাজেয়াপ্ত বা মৃত্যু হলে শেয়ার হস্তান্তর করা যাবে।

এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট কম্পানির বোনাস শেয়ারসহ কোনোভাবে পরিশোধিত মূলধন বাড়াতে পারবে না। কম্পানি রাইট শেয়ার, আরপিও, একত্রীকরণ করার ক্ষেত্রেও অযোগ্য হবে। আর কোনো কম্পানি বা প্রতিষ্ঠান তালিকাভুক্ত কম্পানির প্রতি অন্যূন ২ শতাংশ শেয়ার ধারণের জন্য ওই কম্পানি ব্যক্তিকে ওই তালিকাভুক্ত কম্পানির জন্য পরিচালক মনোনীত করতে পারবে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কোনো পরিচালকের ২ শতাংশ শেয়ার ধারণে ব্যর্থতায় ওই পদে শূন্যতা সৃষ্টি হবে। তবে ২ শতাংশ শেয়ার ধারণ করে এমন শেয়ারহোল্ডারদের মধ্য থেকে পরবর্তী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে পূরণ করতে হবে। শেয়ারবাজারে অধিকতর স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করার জন্য শিগগিরই পরিচালকদের শেয়ার ধারণ নিয়ে নোটিফিকেশন জারি করবে কমিশন।

বাতিল হতে পারে অ্যালায়েন্স সিকিউরিটিজের নিবন্ধন : সিকিউরিটিজ আইন ভঙ্গের অ্যালায়েন্স সিকিউরিটিজ অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টের নিবন্ধন সনদ বাতিল বা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

মন্তব্য