kalerkantho

শনিবার । ১৪ চৈত্র ১৪২৬। ২৮ মার্চ ২০২০। ২ শাবান ১৪৪১

আইন সংশোধন দাবি

পাটের বস্তায় পোল্ট্রি ও ফিশ ফিড ব্যবহারে খরচ বাড়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা   

১৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাটের বস্তায় পোল্ট্রি ফিড ও ফিশ ফিড ব্যবহার বাধ্যতামূলক আইন সংশোধন বা বাতিল করে যুগোপযোগী করার আহ্বান জানিয়েছে খুলনা পোল্ট্রি ফিশ ফিড শিল্প মালিক সমিতি। সমিতির কার্যালয়ে লিখিত বক্তব্য পড়েন খুলনা পোল্ট্রি ফিশ ফিড শিল্প মালিক সমিতির মহাসচিব এস এম সোহরাব হোসেন। বক্তব্যে বলা হয়, ধান, চাল, গম, ভুট্টা, সারসহ ১৭টি পণ্য পাটজাতসামগ্রী দিয়ে বাধ্যতামূলক মোড়কীকরণের লক্ষ্যে ২০১৭ সালের ২১ জানুয়ারি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। গত বছর ওই পণ্যগুলোর সঙ্গে পোল্ট্রি ফিড ও ফিস ফিড যোগ করে ১৯টি পণ্য পাটজাতসামগ্রী দিয়ে মোড়কীকরণের ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক ঘোষণা করা হয়। এই আইন অমান্যকারীদের কারাদণ্ড বা জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। বর্তমানে ব্যবহৃত প্লাস্টিকের প্রতিটি বস্তার দাম ২৫-২৬ টাকা। পাটের বস্তার দাম ৫৭ টাকা। বর্তমানের পাটের বস্তা মোড়কীকরণে ব্যবহার করলে পোল্ট্রি ফিড ও ফিস ফিড মানসম্পন্ন থাকছে না এবং উৎপাদন খরচও বেশি পড়ছে। আইন অমান্য করার অজুহাতে গ্রামাঞ্চলের ক্ষুদ্র পোল্ট্রি ও ফিস ফিড ব্যবসায়ীদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেওয়া হচ্ছে। যাতে এই শিল্পে একটি নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার মুখোমুখি দাঁড়িয়েছে।

তাই পোল্ট্রি শিল্পের স্বার্থে মোড়কীকরণের বাধ্যতামূলক আইন হতে পোল্ট্রি এবং ফিস ফিড বাদ রেখে আইনে সংশোধনী আনার দাবি জানিয়েছে খুলনা পোল্ট্রি ফিস ফিড শিল্প মালিক সমিতি। পাশাপাশি এই দুটি পণ্য মোড়কীকরণের স্বার্থে উপযুক্ত মানসম্পন্ন বস্তা তৈরি এবং বর্তমানের চেয়ে দাম কম ধার্য করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা