kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭। ১১ আগস্ট ২০২০ । ২০ জিলহজ ১৪৪১

বিজিএমইএ নির্বাচন

স্বাধীনতা পরিষদের ১২ অঙ্গীকার দিয়ে ইশতেহার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘নির্বাচন করতে এসে অনেক বাধার সম্মুখীন হয়েছি। সভাপতি হতে চাই না। পরিচালকরা যাকে নির্বাচিত করবে সেই সভাপতি হবে। তবে নির্বাচনে ফেল করার অধিকার দেন।’ গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা ক্লাবে ‘তৈরি পোশাক শিল্পের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ’ বিষয়ে মতবিনিময়সভায় এ কথা বলেন ‘স্বাধীনতা পরিষদ’ আহ্বায়ক ও ডেনিম প্রসেসিং প্লান্টের মালিক মো. জাহাঙ্গীর আলম।

এ সময় বিজিএমইএ পরিচালনা পর্ষদ (২০১৯-২১) নির্বাচনের ১২ অঙ্গীকার দিয়ে ইশতেহার ঘোষণা করে প্যানেলটি।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, অনেক বাধা সত্ত্বেও প্রায় পাঁচ বছর পর বিজিএমইএতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সদস্যরা অন্তত এবার ভোট দিতে পারবেন। ভোটাররা যাকে ইচ্ছা তাকে ভোট দিক। পছন্দমতো নেতা নির্বাচন করুক। জয়-পরাজয় বিষয় না। তার পরও ভোট হোক।

স্বাধীনতা পরিষদের আহ্বায়ক বলেন, ‘নির্বাচন করতে এসে অনেক বাধার সম্মুখীন হয়েছি। সভাপতি হতে চাই না। আমরা পরিচালকর নির্বাচন করছি। পরিচালকরা যাকে নির্বাচিত করবে সেই সভাপতি হবে। এ সময় প্রতিদ্বন্দ্ব্বী প্যানেলের উদ্দেশে তিনি বলেন, নির্বাচন করে ফেল করার অধিকার দেন।’

নির্বাচিত হলে প্রথম কাজ হবে পোশাকশিল্পের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করা উল্লেখ করে স্বাধীনতা পরিষদের আহ্বায়ক বলেন, ‘এ জন্য পোশাকশিল্পের ভাবমূর্তি দেশ ও বিদেশে সঠিকভাবে তুলে ধরাই হবে আমাদের প্রথম অঙ্গীকার।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা