kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

নতুন লোগোতে যাত্রা শুরু পদ্মা ব্যাংকের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন লোগোতে যাত্রা শুরু পদ্মা ব্যাংকের

রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে প্রধান অতিথি হিসেবে লোগো উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থ উপদেষ্টা মসিউর রহমান

নতুন লোগো চালু করল পদ্মা ব্যাংক। এর মাধ্যমে পদ্মা ব্যাংক নামে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করল চতুর্থ প্রজন্মের ফারমার্স ব্যাংক। গতকাল শনিবার ব্যাংকটি তাদের নতুন লোগো চালুর ঘোষণা দেয়। প্রধানমন্ত্রীর অর্থ উপদেষ্টা মসিউর রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে লোগো উন্মোচন করেন। রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে মসিউর রহমান বলেন, সরকারি চারটি ব্যাংক এবং একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান এই ব্যাংকের সিংহভাগ শেয়ারের মালিক। ব্যক্তি খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোও এই ব্যাংকটির মালিকানায় অংশ নিতে পারে। তিনি আরো বলেন, বর্তমানে সরকার ব্যাংকগুলোকে বাজেট বরাদ্দ থেকে সহায়তা করছে। এ ছাড়া দেশের বাইরে অনেক সম্পদ চলে যাচ্ছে। সরকারের বরাদ্দ এবং চোখের আড়ালে চলে যাওয়া সম্পদ এক করা গেলে বিনিয়োগযোগ্য সম্পদ বৃদ্ধি পেত এবং সরকারের উন্নয়নের গতি আরো বাড়ানো সম্ভব হতো। আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম বলেন, ‘দুর্নীতির অভিযোগ মাথায় নিয়েও আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাহসিকতার সঙ্গে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেন। এই পদ্মা সেতু নিয়ে আমরা যেমন গর্ব করতে পারি তেমনি পদ্মা ব্যাংকও একদিন আমাদের গর্বের প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।’

পদ্মা ব্যাংকের চেয়ারম্যান চৌধুরী নাফিজ সরাফাত বলেন, ‘আমরা এই ব্যাংকটিকে দেশের অন্যতম একটি সেরা ব্যাংকে পরিণত করতে কাজ করছি। সবার সহযোগিতায় আশা করছি খুব দ্রুত আমরা আমাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে পারব।’

পদ্মা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. এহসান খসরু বলেন, ‘অতীতে ফারমার্স ব্যাংক নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে যে ধরনের আস্থাহীনতা দেখা দিয়েছিল, তা থেকে বেরিয়ে আসতে গত ২৯ জানুয়ারি ব্যাংকটিকে পদ্মা নামে নামকরণ করা হয়। এর আগের পাঁচ বছরে ব্যাংকটির কার্যক্রমে মানুষের মধ্যে একটি নেতিবাচক ধারণা তৈরি হয়। এখন নতুন লোগো এবং নতুন নামে ব্যাংকটিকে দাঁড় করাতে সরকারের পক্ষ থেকে আমরা যথেষ্ট সহযোগিতা পেয়েছি। সরকারি চারটি ব্যাংক ও একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান এই ব্যাংকটির ৬৮ শতাংশ শেয়ার ধারণ করেছে। এর ফলে ব্যাংকটি খুব দ্রুত এগিয়ে যাবে বলে আমরা আশা করছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা