kalerkantho

শনিবার । ১৬ নভেম্বর ২০১৯। ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

চামড়াজাত পণ্যের প্রদর্শনী আইসিসিবিতে বৃহস্পতিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চামড়াজাত পণ্যের প্রদর্শনী আইসিসিবিতে বৃহস্পতিবার

রাজধানীতে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে ছিলেন এলএফএমইএবি সভাপতি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, আকস ট্রেড এক্সিবিশন প্রাইভেট লিমিটেডের এমডি টিপু সুলতান, পরিচালক নন্দ গোপাল কে

চামড়াজাত পণ্য ও পাদুকা শিল্পের তিন দিনের আন্তর্জাতিক সোর্সিং প্রদর্শনী রাজধানী ঢাকায় শুরু হচ্ছে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে। মেলা উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবারের প্রদর্শনীর নাম দেওয়া হয়েছে ‘বাংলাদেশ লেদার ফুটওয়্যার অ্যান্ড লেদারগুডস ইন্টারন্যাশনাল সোর্সিং শো-২০১৮’।

গতকাল সোমবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে লা ভিঞ্চি হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোশিয়েশন অব বাংলাদেশের (এলএফএমইএবি) সভাপতি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, এই প্রদর্শনী এশিয়া অঞ্চলের দেশগুলোর একমাত্র চামড়াজাত পণ্যের সোর্সিং শো। মেলায় হংকং, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি, জাপান, ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্রসহ ১৩টি দেশের ক্রেতারা অংশ নেবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো ছিলেন আয়োজক প্রতিষ্ঠান আকস ট্রেড এক্সিবিশন প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক টিপু সুলতান, পরিচালক নন্দ গোপাল কে, এলএফএমইএবির নির্বাহী পরিচালক কাজী রওশন আরা প্রমুখ। সাইফুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের পাদুকা এবং চামড়াজাত পণ্য বিশ্বের বড় বড় ক্রেতা এবং ব্র্যান্ড প্রতিনিধিদের কাছে তুলে ধরতেই এই আয়োজন করা হচ্ছে। তিনি বলেন, সরকার রপ্তানি খাতকে বৈচিত্র্যময় করতে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য খাতকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় এই সোর্সিং প্রদর্শনীর আয়োজন করা হচ্ছে। এলএফএমইএবি এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয় দ্বিতীয়বারের মতো এই মেলার আয়োজন করছে। এবারের মেলার স্লোগান হচ্ছে—বাংলাদেশ : ডেস্টিনেশন নেক্সট। টিপু সুলতান জানান, মেলা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) হলেও বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় শেরেবাংলানগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেলার উদ্বোধন করবেন। দুপুর ২টার মূল প্রদর্শনী শুরু হয়ে সেদিন সন্ধ্যা ৬টায় শেষ হবে। এরপর ২৩ ও ২৪ নভেম্বর সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত প্রদর্শনী চলবে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বাংলাদেশের স্থানীয় ও বিদেশি পাদুকা ও চামড়াজাত পণ্য প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলো মেলায় ১০টি মেগা প্যাভিলিয়ন ও ৩০টি স্টলে অংশ নেবে। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ব্র্যান্ড, ক্রেতা, সোর্সিং এজেন্ট, রিটেইলার, চামড়াজাত পণ্য ও পাদুকা শিল্পসংশ্লিষ্ট বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তারা মেলায় অংশ নিয়ে সরাসরি বাংলাদেশ থেকে পণ্য সোর্সিংয়ের সুবিধা ও বিনিয়োগের সুযোগ সম্পর্কে অবগত হতে পারবে। মেলা চলাকালে পাদুকা ও চামড়াজাত পণ্যের আন্তর্জাতিক বাজার পরিস্থিতি নিয়ে চারটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা